শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

৫৫

সৈয়দপুরের সোহেল হত্যাকাণ্ডে আটক দুই কিশোরের স্বীকারোক্তি

প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর ২০১৯  

নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের পুরাতন বাবুপাড়ায় বেসিক শিল্প নগরীর তারকাটা ফ্যাক্টরির শ্রমিক সোহেল হত্যার ঘটনায় ২ কিশোরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার দুইজন হলো, শহরের গোলাহাট এলাকার সদরুল হাসানের ছেলে সুরুজ (১৯) এবং মুন্সিপাড়ার কালু ইলেকট্রেশিয়ানের ছেলে ফয়সাল (১৫)।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সৈয়দপুর সার্কেল) অশোক কুমার পাল বলেন, মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) আটক দুই জন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ফয়সালের বয়স কম হওয়ায় বিচারক তাকে যশোরের শিশু সংশোধনাগারে ও সুরুজকে নীলফামারী জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

প্রকাশ থাকে যে, নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের চাঁদনগর মহল্লার সহিদুল ইসলামের ছেলে মো. সোহেল (২৫)। সে সৈয়দপুর বিসিক শিল্প নগরীতে আলম তাঁরকাটা ফ্যাক্টরিতে শ্রমিকের কাজ করতো। ঘটনার দিন ৬ নভেম্বর সন্ধ্যায় তাঁর চুরি যাওয়া বাইসাইকেলের খোঁজে বের হয় সে (সোহেল)। এর এক পর্যায়ে শহরের খেঁজুরবাগ এলাকায় সে তার চুরি যাওয়া বাইসাইকেল দেখতে পায়। সেই বাইসাইকেলটি উদ্ধার করতে গেলে এলাকার সনু, ফয়সাল, জনি ও রকিসহ অজ্ঞাত ১৫/২০ জন বখাটে কিশোর গ্যাং তারা সোহেলকে  বেদম মারপিট করে। এতে সে গুরুতর আহত হয়। এরপর প্রথমে তাকে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে এবং পরে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৭ নবেম্বর ভোর সাড়ে ৫টায় সোহেলের মৃত্যু হয়।এ ঘটনায় নিহত যুবক মো. সোহেলের বাবা বাদী হয়ে সৈয়দপুর থানায় ওই মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) মো. আবুল হাসনাত খান জানান, সোহেলের সাইকেল চুরির বিষয়টি সত্য। কিন্তু আসামীদের স্বীকারোক্তি মতে ওই দিনের মারপিটের ঘটনাটি ছিল এক নারীকে কেন্দ্র করে।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর