ব্রেকিং:
সপ্তাহখানেক নিখোঁজ থাকার পর সন্ধান মিলেছে রংপুরের আলোচিত বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের। আজ শুক্রবার (১৮ জুন) বিকেলে তার খোঁজ পাওয়া যায়।
  • শনিবার   ১৯ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৪ ১৪২৮

  • || ০৭ জ্বিলকদ ১৪৪২

সর্বশেষ:
নতুন প্রজন্মকে অপরাধমূলক কাজ থেকে দূরে রাখতে হবে- শিক্ষামন্ত্রী রংপুরের শতরঞ্জি পেল জিআই পণ্যের স্বীকৃতি রৌমারীতে মাদরাসাছাত্রদের মারধরের অভিযোগে শিক্ষক আটক গ্রাহক সেবা বৃদ্ধি করার নির্দেশ বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর

সৈয়দপুরে ফের চালু হচ্ছে বিশ্বের একমাত্র ফাইলেরিয়া হাসপাতাল

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৯ জুন ২০২১  

নীলফামারীর সৈয়দপুরে প্রতিষ্ঠিত বিশ্বের একমাত্র ফাইলেরিয়া (গোদ রোগ) হাসপাতালটি ফের চালু হতে যাচ্ছে। মঙ্গলবার হাসপাতালের কনফারেন্স রুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এ উপলক্ষে হাসপাতালের কনফারেন্স রুমে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সমন্বয় পর্ষদের সভাপতি ও স্থানীয় কামারপুকুর ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান জিকো আহমেদ। স্থানীয় জমিদাতা ও পরিচালনা কমিটি এবং প্রতিষ্ঠাতা কর্তৃপক্ষের মধ্যে সমন্বয়ের জন্য একটি পরিচলনা পর্ষদ গঠন করা হয়েছে।

বিশিষ্ট গোদ রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন বিশ্বের একমাত্র ফাইলেরিয়া হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০০২ সালে জাপান সরকারের অর্থায়নে বিশ্বের প্রথম ফাইলেরিয়া হাসপাতালটি যাত্রা শুরু করে। জাপান সরকার ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ সহায়তায় এখানে একটি পাঁচতলা ভবন নির্মাণ করা হয়। ফাইলেরিয়া হাসপাতালের সুনাম দেশ ছেড়ে বিদেশে ছড়িয়ে পড়ে। এখানে স্বল্পমূল্যেই বিশ্বমানের সেবা পেয়ে থাকে মানুষ।

দেশের উত্তর অঞ্চলের নীলফামারী জেলাসহ ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধার মানুষের ফাইলেরিয়া (গোদরোগ) রোগের প্রার্দুভাব এক সময় বেশি হওয়ায় হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠিত হয়।

২০১২ সাল পর্যন্ত এ হাসপাতালটি খুব ভালোভাবেই পরিচালিত হতে থাকে। কিন্তু এর পর প্রতিষ্ঠাতার সঙ্গে স্থানীয় পরিচালনা কমিটির দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হলে মুখ থুবরে পড়ে এর সার্বিক কার্যক্রম। 

হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠার পর দীর্ঘদিন এখানে ফাইলেরিয়া ও ফেস্টুলা রোগের চিকিৎসা প্রদানের মাধ্যমে ব্যাপক সুনাম অর্জন করে। এতে লোভাতুর হয়ে হাসপাতাল প্রতিষ্ঠাকালীন জমিদাতার জামাতার কুনজর পড়ে। ফলে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ডা. মোয়াজ্জেম হোসেনকে সরিয়ে হাসপাতালটি কুক্ষিগত করে নেয় দখলদার গোষ্ঠী।  

সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া হাসপাতালের উদ্যোক্তা, প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন হাসপাতালটিকে পুনরায় তার অতীত অবস্থানে ফিরিয়ে এনে বাংলাদেশ তথা সারা বিশ্বের ফাইলেরিয়া (গোদ রোগ) আক্রান্ত মানুষদের সঠিক চিকিৎসা প্রদানের মাধ্যমে দেশের সুনাম অক্ষুণ্ণ রাখতে সংবাদকর্মীসহ, স্থানীয় জনগণ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের প্রতি সহযোগিতা প্রদানের আহ্বান জানান।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ফাইলেরিয়া বা গোদ একটি বড় স্বাস্থ্য সমস্যা। ফাইলেরিয়া-সংশ্লিষ্ট কয়েকটি পরজীবী এ রোগের জন্য দায়ী। আক্রান্ত ব্যক্তির হাত-পাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ অস্বাভাবিক মোটা হয়ে যায়। অনেকে আস্তে আস্তে পঙ্গুত্ব বরণ করে। কয়েক প্রজাতির মশার মাধ্যমে এসব পরজীবী আক্রান্ত ব্যক্তি থেকে সুস্থ মানুষে সংক্রমিত হয়।