• শনিবার   ০৮ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৪ ১৪২৮

  • || ২৪ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
আজ শেখ হাসিনার দেশে ফেরার দিন দেশে ৯০০ টন অক্সিজেন মজুদ আছে- স্বাস্থ্যমন্ত্রী খানসামায় করোনায় কর্মহীন ৩ হাজার পরিবারকে সহযোগিতা বালু উত্তোলনের ঘটনায় ১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা কুড়িগ্রামে পরিবহণ শ্রমিকরা পেলেন প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার

সৈয়দপুরে রোজাদারদের ডেকে তোলার কাজ করে ‘কাফেলার দল’ 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৯ এপ্রিল ২০২১  

জাগো রোজাদার...। ‘জাগো জাগো রোজাদার জাগো, সাহরির সময় হয়েছে, আঁখি মেলে দেখ। রমজানের এই রোজার শেষে আসবে খুশির ঈদ’ মুখে ইসলামিক গজল আর কবিতার শ্লোক। টর্চ, লাঠি, চার্জার বা ব্যাটারির আলো হাতে বেশ কয়েক জন লোক। এরা ভোররাতে গান গেয়ে রোজাদারদের জাগিয়ে তুলছেন।

এমন চিত্র নীলফামারীর সৈয়দপুরের। আর যারা এভাবে জাগিয়ে তুলছেন তারা পরিচিত ‘কাফেলা’ বা ‘রাত জাগানিয়ার দল’ নামে। রমজান মাস জুড়েই এমন দায়িত্ব পালন করেন তারা।

ডিজিটাল এই যুগেও এ উপজেলায় এমন কাফেলা দলের সংখ্যাটা নেহাত কম নয়। আগে প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় একাধিক কাফেলার দল থাকলেও কালের বিবর্তনে সংখ্যায় এখন অনেক কম। তবে এখনো পৌরসভার ১৫টি ওয়ার্ডেই কাফেলা দলের দেখা মেলে। প্রতিটি দলে সদস্য সংখ্যা চার-পাঁচ জন। রমজান মাসের প্রথম দিন থেকে ঈদের চাঁদ দেখা পর্যন্ত সেহরির জন্য প্রতিদিন রাত ২টার দিকে তারা নেমে পড়েন রোজাদারদের ডেকে তোলার কাজে। রাত জেগে এভাবে ডেকে তোলা তাদের কাছে পরম পুণ্যের কাজ।

শহরের ইসলামবাগ এলাকার মিনারা কাফেলা দলের সদস্য মো. নাদিম, মো. ফাহিম, মনসুর আলী ও নওয়াজ জানান, এই কাজে তারা যথেষ্ট আনন্দ পান। দিনের বেলা তারা বিভিন্ন শ্রমজীবী পেশার সঙ্গে জড়িত। কিন্তু রাতে মিনারা কাফেলার এ দল রিকশায় মাইক বেঁধে মাইক্রোফোনে গজল শুনিয়ে ঘোরেন।

দলের বয়োজ্যেষ্ঠ মো. নাদিম বলেন, আমি ৪৫ বছর যাবত্ কাফেলার দলে যুক্ত। প্রতি বছরই রোজাদারদের ডেকে তোলার কাজ করি। এলাকার কিছু তরুণ ও যুবক স্বেচ্ছায় রাত জাগার দলে যোগ দেয়। তাদের বিশ্বাস এই কাজে মানুষের দোয়া মেলে।