ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৯৯৭ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২৮৮ জন। মহামারি করোনাভইরাসের চিকিৎসায় শর্তসাপেক্ষে রেমডেসিভির ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। শুক্রবার এই অনুমোদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) হেলথ কমিশনার স্টেলা কাইরিয়াকাইডস।
  • রোববার   ০৫ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৭

  • || ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনায় আমাদের নেতাকর্মীরা মানুষের পাশে আছে- শেখ হাসিনা কুড়িগ্রামে ধরলার পানি বাড়ছে: বাঁধে ভাঙন তিন মাস পর ফিরলেন মোশাররফ করিম মৃত্যুর পর মানুষের ৯ আকাঙ্খা ও আফসোস যে কারণে ভারতকে সতর্ক করলো চীন
৫৯

হারের ব্যবধান কমানোর চেষ্টায় বাংলাদেশ

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০১৯  

ইন্দোরে ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিনে ইনিংস হারের শঙ্কায় বাংলাদেশ। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে শুরুতেই ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলেছে মুমিনুলের দল। মুশফিক ছাড়া আর কোনো স্বীকৃত ব্যাটসম্যান না থাকায় বলতে গেলে পরাজয়ের ক্ষণ গুনছে টাইগাররা।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রান। ভারতের প্রথম ইনিংসের রান পেরোতে চাইলে এখনো করতে হবে ২০৭ রান।

দ্বিতীয় দিন শেষে ৩৪৩ রানের লিড নিয়ে সাজঘরে ফিরেছিল ভারত। ইনিংস ঘোষণা করেছে আর কোনো রান না করেই। ফলে সকালবেলাই ব্যাট হাতে পরীক্ষায় নামতে হয় টাইগার ব্যাটসম্যানদের। সে পরীক্ষায় যেনো আবারো ফেল করার মিশনে নেমেছেন সবাই। দিনের শুরুতেই সাজঘরে ফিরে আসেন চারজন।

নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারের প্রথম বলে যাদবের বলে বোল্ড হয়ে যান কায়েস। প্রথম ইনিংসের মতো এবারও তিনি আউট হন ৬ রানে।

সঙ্গী বিয়োগে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি সাদমান ইসলামও। পরের ওভারেই ইশান্ত শর্মার বলে ক্লিন বোল্ড হন সাদমান। মজার বা পরিতাপের বিষয়, সাদমানও আউট হয়েছেন নিজের প্রথম ইনিংসের সমান ৬ রানেই। বল খেলেছেন সমান ২৪টি।

অধিনায়ক মুমিনুলের উপর দায়িত্ব ছিল বড় ইনিংস খেলার। তবে ব্যর্থ তিনিও। শামির বলে ৭ রান করেই লেগ বিফোরের ফাঁদে পরে আউট হয়ে যান তিনি। মিথুন যেনো উইকেট বিলিয়েই আসলেন। শামির বলে আগারওয়ালের ক্যাচ হওয়ার আগে করেছেন ২৬ রান।

শামির তৃতীয় শিকারে পরিণত হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। স্লিপে রোহিত শর্মার ক্যাচ হওয়ার আগে ৩৫ বলে ১৫ রান করেন তিনি।

এরপর মুশফিক আর লিটন মিলে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন। তবে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে আসার পুরনো অভ্যাস থেকে বেরোতে পারেননি লিটন। অশ্বিনের বলে এগিয়ে এসে মারতে যেয়ে তার হাতেই ক্যাচ তুলে দেন এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। আউট হন ৩৫ রানে।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় মাত্র ১৫০ রানে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। বেশ কয়েকবার জীবন পেয়েও ৪৩ রানের বেশি করতে পারেননি মুশফিকুর রহীম। অধিনায়ক মুমিনুল হক খেলেন ৩৭ রানের ইনিংস। এছাড়া আর কেউই তেমন কিছু করতে পারেননি।

জবাবে ভারতের ইনিংসে মায়াঙ্ক আগারওয়াল একাই টপকে গেছেন বাংলাদেশের করা ১৫০ রানকে। ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ইনিংস খেলে তিনি করেছেন ২৪৩ রান। এছাড়া আজিঙ্কা রাহানে ৮৬, রবিন্দ্র জাদেজা ৬০*, চেতেশ্বর পুজারা ৫৪ রান করলে ৬ উইকেটে ৪৯৩ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে তারা।

খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর