ব্রেকিং:
ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন, ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। সিরিয়ায় গাড়িবোমা হামলায় নিহত ১২। যুক্তরাষ্ট্রে বেতন বিল পরিশোধের দাবিতে নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান জেনারেল মটরসের ৫০ হাজার কর্মীর ধর্মঘট। পরবর্তী নাগরিকত্ব তালিকা হবে হরিয়ানায়; বললেন সেখানকার মুখ্যমন্ত্রী। জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পূর্ণাঙ্গ চিত্র, দুই সপ্তাহের মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারকে প্রকাশের নির্দেশ ভারতের সুপ্রিম কোর্টের। চলতি বছর জম্মু-কাশ্মীরে ২০৫০ দফা অস্ত্রবিরতি লংঘন করেছে পাকিস্তান। সংঘাতে প্রাণ হারিয়েছেন ২১ ভারতীয়; বললেন দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র। ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে প্রমোদতরী ডুবিতে ১২ জনের মরদেহ উদ্ধার। নিখোঁজ ৩০ জন। কঙ্গোর রাজধানীর কাছে নৌকাডুবিতে নিখোঁজ ৩৬ জন, উদ্ধার ৭৬ জন। হংকং-এ গণতন্ত্র পন্থী আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ। দাবি না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা। সৌদি আরবের তেল ক্ষেত্রে হুতি বিদ্রোহীদের হামলার পর বিশ্ববাজারে তেলের দাম বৃদ্ধি। ড্রোন হামলার নিন্দা জানিয়ে সৌদি যুবরাজের পাশে থাকার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের।

সোমবার   ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ১ ১৪২৬   ১৬ মুহররম ১৪৪১

সর্বশেষ:
রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন আজ। ব্যাক্তি আদর্শচ্যুত হতে পারে, কিন্তু ছাত্রলীগ আদর্শচ্যুত হয়নি; বললেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জয়। সাভার পৌর আওয়ামী লীগের সহ প্রচার সম্পাদক হত্যার ঘটনায় ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা। আটক দুইজন। দলে অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স, বললেন ওবায়দুল কাদের। ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে জাবি উপাচার্যের পদত্যাগ চায় বিএনপি। দুর্নীতিগ্রস্থ যতই ভাল চালক হোক, তাদের সরিয়ে দিতে হবে; বিআরটিসির চেয়ারম্যানকে বললেন ওবায়দুল কাদের। পলাশবাড়ীতে নির্মাণাধীন ভবন থেকে অজ্ঞাত যুবকের মরদেহ উদ্ধার। কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড। যশোরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে ৪৫ জন আটক; মাদক উদ্ধার। চাঁপাইনবাবগঞ্জের কয়লা বাড়িতে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক ১। রোহিঙ্গাদের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের কেউ জড়িত থাকলে সাথে সাথে ব্যবস্থা নেয়া হবে, বললেন কবিতা খানম। বিআরটিসি`র নতুন চেয়ারম্যান এর প্রথম কাজ দুর্নীতি বন্ধ করা, বললেন ওবায়দুল কাদের। কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে বিদেশি অস্ত্রসহ আটক ১ রোহিঙ্গা। গাজীপুরের সালনায় ইয়াবাসহ ৫ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব। নীলফামারীর দারোয়ানী রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে মা ও কন্যা শিশুর মৃত্যু। কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মাদক মামলার আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে অস্ত্র-গুলিসহ আটক অস্ত্র ব্যবসায়ী মুজিবুর রহমান। পাবনায় গৃহবধূকে ধর্ষণের পর, থানায় বিয়ের প্রাথমিক প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি। রাজবাড়ীর চন্দনীতে পুলিশের সঙ্গে গোলাগুলিতে ৯ মামলার আসামি রহিম নিহত। ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের বাংলাদেশের পরের ম্যাচগুলোর জন্য দল থেকে বাদ পড়েছেন সৌম্য সরকার। ফিরেছেন নাজমুল শান্ত, নাঈম শেখ, আমিনুল বিপ্লব রুবেল ও শফিউল।
৩৭৯

২০০ নাকি ২০২?

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। মাশরাফির নাম যেখানে আছে কিছু আলোচনা আর আবেগ থাকেই। মাশরাফি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেললেন বছরের শেষ ওয়ানডে। আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে কারো মতে এটা মাশরাফির ২০০ তম ম্যাচ। কারো মতে ২০২। বর্তমানে মাশরাফিকে নিয়ে এইটাই মূল আলোচনার বিষয়। মাশরাফির ম্যাচ সংখ্যা ২০০টি। আবার ২০২টি বললেও ভুল হবে না। মাশরাফির ক্ষেত্রে দুটি সংখ্যাই সঠিক।

 

1.মাশরাফির ২০০ নাকি ২০২?

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিডিয়ায় উঠে আসতে থাকে মাশরাফির ২০০তম ওয়ানডে ম্যাচ। আর পরিসংখ্যান ঘাটলে দেখা যায় টাইগার দলপতি খেলতে নেমেছেন ২০২তম ওয়ানডেতে।

কারণ বাংলাদেশের জার্সি গায়ে মাশরাফি খেলেছেন ক্যারিয়ারের ২০০তম ওয়ানডে ম্যাচ, এশিয়া একাদশের হয়ে খেলেছেন আরও দুটি ম্যাচ। সবমিলিয়ে ম্যাশের নামের পাশে ২০২টি ওয়ানডে। কাকতালীয় হলেও সত্য যে,শেষ ওয়ানডে ম্যাচের মধ্যদিয়ে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম বিশ্বের ২০০তম ভেন্যু হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। যেখানে ঘরের মাটিতে দেশের জার্সি গায়ে ম্যাশও খেললেন ঠিক ২০০তম ম্যাচ। এমন সৌভাগ্য আর কয়জন ক্রিকেটারের হয়েছে?

 

2.মাশরাফির ২০০ নাকি ২০২?

২০০৭ সালের জুনে অনুষ্ঠিত হয় অ্যাফ্রো-এশিয়া কাপ। তিন ম্যাচের সেই ওয়ানডে সিরিজটি আইসিসি থেকে আন্তর্জাতিক ওয়ানডের স্বীকৃতি পেয়েছিল। সেখানে মুখোমুখি হয়েছিল এশিয়া একাদশ এবং আফ্রিকা একাদশ। বাংলাদেশ থেকে এশিয়া একাদশে সুযোগ পেয়েছিলেন টাইগারদের বর্তমান দলপতি মাশরাফি এবং সাবেক স্পিনার মোহাম্মদ রফিক। তিন ম্যাচের প্রথমটি এবং তৃতীয়টিতে সুযোগ পেয়েছিলেন ম্যাশ। তিনটি ম্যাচেই জিতেছিল এশিয়া একাদশ। দ্বিতীয় ম্যাচে মাশরাফি না খেললেও ছিলেন মোহাম্মদ রফিক, প্রথম ম্যাচে ছিলেন না। তবে, সিরিজের তৃতীয় এবং শেষটিতে ছিলেন দুজনই।

 

3.মাশরাফির ২০০ নাকি ২০২?

২০০৭ সালের ৬ জুন প্রথম ম্যাচে এশিয়া একাদশ জিতেছিল ৩৪ রানের ব্যবধানে। দ্বিতীয় ম্যাচে ৯ জুন আফ্রিকা একাদশকে ৩১ রানে হারায় এশিয়া একাদশ। আর সিরিজের শেষ ম্যাচে ১০ জুন মাশরাফি-রফিকরা জিতেছিল ১৩ রানের ব্যবধানে। প্রথম ম্যাচে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে এশিয়া একাদশ তুলেছিল ৩১৭ রান। জবাবে, ৪৭.৫ ওভারে গুটিয়ে যাওয়ার আগে আফ্রিকা একাদশ তোলে ২৮৩ রান। দ্বিতীয় ম্যাচে নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে এশিয়ার সেরারা তুলেছিল ৩৩৭ রান। জবাবে, ৪৯.৫ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে আফ্রিকা একাদশ করেছিল ৩০৬ রান। আর সিরিজের শেষ ম্যাচটিতে ৮ উইকেট হারিয়ে এশিয়া একাদশ করেছিল ৩৩১ রান। জবাবে, ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে আফ্রিকা একাদশ তোলে ৩১৮ রান।

 

4.মাশরাফির ২০০ নাকি ২০২?

ভারতের বেঙ্গালুরুতে প্রথম ম্যাচে এশিয়া একাদশের হয়ে ওপেনার সনাথ জয়সুরিয়া ১৪, বিরেন্দর শেওয়াগ ৪৫, সৌরভ গাঙ্গুলি ৩২, দলপতি মাহেলা জয়াবর্ধনে ৬৫, মোহাম্মদ ইউসুফ ৬৬, যুবরাজ সিং ৩১, মহেন্দ্র সিং ধোনি ২, হরভজন সিং ২০, মাশরাফি ১৩, জহির খান ৬* রান করেন। ইনিংসের শেষ বলটিতে আউট হন ১৬ বলে ১৩ রান করা ম্যাশ। বল হাতে মাশরাফি ৬.৫ ওভারে ৫৭ রান দিয়ে নিয়েছিলেন একটি উইকেট। সেটি শন পোলকের উইকেট। যিনি ওই ম্যাচে করেছিলেন ইনিংস সর্বোচ্চ ১৩০ রান। ব্যাট হাতে ব্যর্থ ছিলেন এবিডি ভিলিয়ার্স, স্টিভ টিকোলো, জাস্টিন কেম্পরা। মার্ক বাউচার ২৫, এলটন চিগুম্বুরা ৪০ আর টমাস উদুয়ো ৩৯ রান করেন। ম্যাচ সেরার পুরস্কার উঠেছিল শন পোলকের হাতে।

চেন্নাইয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ পাননি মাশরাফি। সে ম্যাচে এশিয়া একাদশের ওপেনার শেওয়াগ ৫২, জয়সুরিয়া ১১, গাঙ্গুলি ৮৮, ধোনি ৩৩, জয়বর্ধানে ৪৫, ইউসুফ ৫১, যুবরাজ ৩০*, রফিক ১ রান করেন। বল হাতে রফিক ১০ ওভারে ৬২ রান দিয়ে তুলে নেন দুটি উইকেট। ডি ভিলিয়ার্স ১৩, সিবান্দা ৩৫, বোটা ডিপেনার ৬৭, বাউচার ৭৩, পোলক ৩৫, জোহান বোথা ১৩, অ্যালবি মরকেল ১৩ রান করেন। রফিক ফিরিয়ে দেন অ্যালবি মরকেল এবং চিগুম্বুরাকে।

 

5.মাশরাফির ২০০ নাকি ২০২?

চেন্নাইয়ে তৃতীয় ম্যাচে ব্যাটিংয়ে নেমে এশিয়া একাদশের দলপতি জয়াবর্ধনে ১০৭ এবং ধোনি অপরাজিত ১৩৯ রান করেন। মাশরাফি ১ এবং রফিক ০* রান করেন। আফ্রিকা একাদশের ওপেনার ডি ভিলিয়ার্স ৭০, সিবান্দা ৪৫, স্টিভ টিকোলো ১১, জাস্টিন কেম্প ৮৬, বাউচার ৭, পোলক অপরাজিত ৫৮ রান করেন। সেই ম্যাচে মাশরাফি ৯ ওভারে ৫১ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন। আর রফিক ১০ ওভারে ৬৫ রান খরচায় তুলে নিয়েছিলেন সর্বোচ্চ চারটি উইকেট। ফিরিয়ে দিয়েছিলেন ডি ভিলিয়ার্স, সিবান্দা, ডিপেনার আর কেম্পকে।

আর বাংলাদেশের জার্সিতে খেলা ২০০ তম ম্যাচে ৮ উইকেটে জয় পেয়েছেন টাইগার দলপতি।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –