ব্রেকিং:
জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার কারণে ২৫ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি দেশের আটটি উপজেলা পরিষদ, দু’টি পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ চলছে

সোমবার   ১৪ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৯ ১৪২৬   ১৪ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
রাজধানীতে পুলিশের ওপর বোমা হামলার ঘটনায় জড়িত নব্য জেএমবির দুই সদস্য গ্রেফতার শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণে কাজ করছি: বুয়েট ভিসি জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ড শেষে ড্র করেছে ঢাকা ও রাজশাহী আগামী মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও ভারতের অনুর্ধ্ব-১৫ কিশোরীরা।
৫১

৩০ কোটি টাকা জরিমানা দিতেই হচ্ছে গ্রামীণফোনকে

প্রকাশিত: ২৭ আগস্ট ২০১৯  

দেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোনের ওপর আরোপ করা টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) ৩০ কোটি টাকার জরিমানা বৈধ বলে ঘোষণা দিয়েছেন হাইকোর্ট। আইন ও চুক্তি ভেঙে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা দেয়ায় ২০১৬ সালের ৩০ অক্টোবর এ জরিমানা করা হয়েছিল।

পরবর্তী সময়ে জরিমানার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করে গ্রামীণফোন। সেই রিটের শুনানি শেষে বিচারপতি রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের বেঞ্চ রোববার এ রায় দিয়েছেন।

তবে ওই অর্থ পরিশোধে গ্রামীণফোনকে নতুন করে চিঠি দিতে হবে বিটিআরসিকে। রায়ের অনুলিপি পাওয়ার চার মাসের মধ্যে এ চিঠি দিতে হবে বিটিআরটিসিকে।

রায়ের পর্যবেক্ষণে হাইকোর্ট বলছেন, টেলিকম আইন লঙ্ঘন করে ব্রডব্যান্ড সেবা চালু করে গ্রামীণফোন ফৌজদারি অপরাধ করেছে। এছাড়া অপটিক্যাল ফাইবারের (তার) মাধ্যমে গ্রাহকদের ‘গো ব্রডব্যান্ড’ ইন্টারনেট সেবা দেয়ায় রাষ্ট্রের কী ক্ষতি হয়েছে, তা মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের মাধ্যমে নিরূপণ করতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন জুনায়েদ আহমেদ চৌধুরী। আর বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন খন্দকার রেজা-ই-রাকিব।

রায়ের পর বিটিআরসির আইনজীবী সাংবাদিকদের বলেন, গো ব্রডব্যান্ড নামে গ্রামীণফোন গ্রাহকদের ট্রান্সমিশন সংযোগ দিয়েছে। এটি ইনফ্রাস্ট্রাকচার নীতিমালার ৪ দশমিক ৭ এবং ৪ দশমিক ৮ নম্বর শর্তানুযায়ী সম্পূর্ণ অবৈধ।

এ সংক্রান্ত আইন তুলে ধরে তিনি বলেন, মোবাইল ফোন অপারেটররা অপটিক্যাল ব্যাকবোন ট্রান্সমিশন স্থাপন করতে পারে না। এর অনুমোদন রয়েছে, শুধু অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্ক ট্রান্সমিশন সেবাদানকারী নেশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন) প্রতিষ্ঠানগুলোর। ফলে এ সার্ভিসটি চালু রাখা আইনসিদ্ধ নয় বলে রায় দিয়েছেন আদালত।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –