রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

১০

৪৯২টি গ্রামকে বেকারমুক্ত করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার

প্রকাশিত: ১ নভেম্বর ২০১৯  

দেশের ৪৯২টি গ্রামকে বেকারমুক্ত করার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে অধীনে দেশের ৬৪টি জেলার ৪৯২ উপজেলার ৪৯২টি গ্রামকে এ কর্মসূচির আওতায় আনা হবে। বেকারমুক্ত করতে প্রতিটি উপজেলা থেকে একটি করে গ্রাম বাছাই করা হবে দারিদ্র্যের হার বিবেচনায় নিয়ে।

এ জন্য স্থানীয়দের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠিত হবে। যে কমিটিকে উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ (ইউএনও) স্থানীয় গণমান্য ব্যক্তিরাও অন্তর্ভুক্ত হবেন। ওই কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতেই চূড়ান্ত হবে কোন উপজেলার কোন গ্রাম বেকারমুক্ত করতে সরকারের নেওয়া পাইলট প্রকল্পের আওতায় আনা হবে। আজ শুক্রবার (১ নভেম্বর) জাতীয় যুব দিবসে এমন তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। 

যুব ও  ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সূত্র মতে দেশে ৪৯২টি উপজেলায় মোট গ্রামের সংখ্যা ৮৭ হাজার ৩১৯টি। এর মধ্যে মাত্র ৪৯২টি গ্রামকে বেকারমুক্ত করার লক্ষ্যে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ‘বেকারমুক্ত গ্রাম সৃজন’ প্রকল্পনামে একটি প্রকল্প গ্রহণের কথা ভাবা হচ্ছে। এ ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে বেকারমুক্ত গ্রামটি থেকে শিক্ষা নিয়ে পাশের গ্রামের যুবকরাও বেকারমুক্ত হওয়ার অনুপ্রেরণা পাবেন বলে স্বপ্নই দেখছে সরকারের নীতি-নির্ধারণী মহল।

এসব গ্রাম বেকারমুক্ত করতে প্রথমেই নির্ধারণ করা হবে পুরো গ্রামে মোট বেকারের সংখ্যা কত? এর মধ্যে শিক্ষিত, অশিক্ষিত, দক্ষ, অদক্ষ যুবক চিহ্নিত করা হবে। খোঁজ নেওয়া হবে এসব বেকারদের মধ্যে পারিবারিক আর্থিক সচ্ছলতা কেমন। এসব ধরন চিহ্নিত করে বাছাই করা বেকারদের দেওয়া হবে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের পাশাপাশি দেওয়া হবে ব্যাংক ঋণও। শেখানো হবে কর্মসংস্থানের না উপায়ও। উপযোগী হলে বেকার যুবকদের বিদেশে কর্মসংস্থানেরও ব্যবস্থা করা হবে ওই প্রকল্পর আওতায়। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবয়নে ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশে বেকারের হার ৩ শতাংশে নামিয়ে আনতে হবে। এজন্য এ ধরনের কর্মসূচি বাস্তবায়ন কল্যাণ বয়ে আনবে।

বাংলাদেশে বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ৮৩টি প্রশিক্ষণ ট্রেডের পাশাপাশি প্রতিনিয়ত নতুন ট্রেডের মাধ্যমে যুবকদের দক্ষ করে তোলা হচ্ছে। এর মাধ্যমে বেকার যুবকরা দেশে বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ পাচ্ছেন। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত যুবকরা তাদের জ্ঞান কাজে লাগিয়ে স্থানীয়ভাবে উৎপাদন বাড়ানোর ক্ষেত্রে সরাসরি অবদান রাখছে। বর্তমান সরকারের সময়ে ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০১৯ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত দেশে মোট ২৭ লাখ ১৮ হাজার ৬৪৪ জনকে বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। একই সময়ে ৬ লাখ ৮২ হাজার ৪০ জনকে আত্ম কর্মসংস্থানের মাধ্যমে স্বাবলম্বী হয়েছে। একই সময়ে মোট ২ লাখ ২৯ হাজার ৯২১ জন প্রশিক্ষত যুবককে ১ হাজার ২৯ কোটি ২৫ লাখ ৯৬ হাজার টাকা ঋণ দেওয়া হয়েছে।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর