• শনিবার   ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
তারা বুদ্ধিজীবী না, বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীজীবী- প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার প্রশংসায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ঘূর্ণিঝড় ‘মানদৌস’ নিয়ে আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে: নৌপ্রতিমন্ত্রী শামসুল আলমের প্রতি ভারতীয় হাই কমিশনারের শ্রদ্ধা

প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেলেন সেই ভিক্ষুক

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ এপ্রিল ২০২০  

ভিক্ষা করে নিজের জমানো ১০ হাজার টাকা দান করে মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন শেরপুরের ঝিনাইগাতী ভিক্ষুক নজিম উদ্দিন। সে খবর মিডিয়ায় প্রকাশ হওয়ার পরই বদলে গেল তার ভাগ্য। ভিক্ষুক নজিম উদ্দিনের পুনর্বাসনের দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গতকাল সকালে প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব-১ সালাহ উদ্দিনকে উদ্ধৃত করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবেল মাহমুদ গণমাধ্যমকে ওই তথ্য নিশ্চিত করেন।

এদিকে গতকাল দুপুরে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ রজনীগন্ধায় ভিক্ষুক নজিম উদ্দিনকে উষ্ণ সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। ওই সময় জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব তাকে লালসবুজের উত্তরীয় ও ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। সেই সঙ্গে তিনি তার হাতে জেলা প্রশাসনের তরফ থেকে নগদ ২০ হাজার টাকা ও প্রধানমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে তিনি পাচ্ছেন ২৫ লাখ টাকা মূল্যমানের ১২ শতক জমি এবং সেই জমিতে ১২ লাখ টাকা ব্যয়ে পাকা বাড়ি ও জীবিকা নির্বাহের জন্য একটি দোকান।

ওইসময় জেলা প্রশাসক বলেন, ভিক্ষুক নজিম উদ্দিনের দৃষ্টান্তে আমরা অভিভূত এবং অনুপ্রাণিত হয়েছি। তিনি ভিক্ষা করলেও হৃদয়ের দিক দিয়ে অনেক ধনশালী ও ঐশ্বর্যবান।

ভিক্ষুক নজিম উদ্দিন বলেন, ‘এই বয়সে কিছু পাওয়ার আশা আমার আছিল না। তবুও আমার কতা হুইন্যা শেখের বেডি মুখ তুইলা তাহাইছে, এতে আমি খুব খুশি। আল্লাই শেখের বেডি হাসিনারে আরও বাঁচায়া রাহুক।’

উল্লেখ্য, ২১ এপ্রিল মঙ্গলবার ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের গান্ধীগাঁও গ্রামের ভিক্ষুক নজিম উদ্দিন দুই বছর ভিক্ষা করে জমানো ১০ হাজার টাকা করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতিতে অসহায় হয়ে পড়া মানুষের খাদ্য সহায়তা তহবিলে দান করেন। তার ওই মানবতার দৃষ্টান্ত বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে সারা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নজরে আসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।