• শনিবার   ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
তারা বুদ্ধিজীবী না, বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীজীবী- প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার প্রশংসায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ঘূর্ণিঝড় ‘মানদৌস’ নিয়ে আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে: নৌপ্রতিমন্ত্রী শামসুল আলমের প্রতি ভারতীয় হাই কমিশনারের শ্রদ্ধা

‘সেনাবাহিনী দোকান ঘর তুলে না দিলে পথে বসতে হতো’ 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩০ মে ২০২০  

গলাচিপায় ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্তদের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে গৃহ নির্মান করে দেওয়া হয়েছে। পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার রতনদী তালতলী ইউনিয়ন, গলাচিপা সদর ইউনিয়ন এবং পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের দোকান ঘর নির্মান করে দেয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শেখ হাসিনা সেনানিবাসের সেনাবাহিনীর মেজর স্মৃতি দত্ত এর নেতৃত্বে ৪২ ফিল্ড রেজিমেন্ট আর্টিলারি এবং ৭ পদাতিক ডিভিশনের সার্বিক তত্তাবধানে সেনাবাহিনীর একটি টিম সকাল থেকে ২টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় ৩টি গৃহ নির্মাণ করে দেয়।

গলাচিপা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত অনিল শাহা বলেন, ‘আমার দোকান ঘরটি গাছ পড়ে ভেঙে গেছে। বাংলাদেশের সেনাবাহিনীর আমার দোকান ঘরটি তুলে না দিয়ে পথে বসতে হতো।’ 

গলাচিপা সদর ইউনিয়নের পক্ষিয়া গ্রামের কালাম মৃধা বলেন, ‘সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আমার ঘর নির্মাণ করে দিছে। আমি আল্লাহর কাছে তাদের জন্য দোয়া করি। তারা যেন মানব সেবায় সবসময় মানুষের সেবা করতে পারে। 

এ প্রসঙ্গে সেনাবাহিনীর মেজর স্মৃতি দত্ত জানান, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত ৩টি পরিবারেকে সেনাবাহিনীর সদস্যরা গৃহ নির্মাণ করে দিয়েছে। মানবতার সেবায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এটা একটি চলমান প্রক্রিয়া।