• রোববার   ০২ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৭ ১৪২৯

  • || ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
পদ্মাসেতু নির্মাণ বাংলাদেশের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ ছিল- শেখ হাসিনা বিশ্ব অহিংস দিবস আজ ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস, সতর্ক সংকেত সবার অজান্তে পুকুর নেমে নিথর হলো দুই শিশু শেখ হাসিনার জন্মদিনে জন্ম নেওয়া নবজাতকরা পেলো উপহার

রংপুরে বাল্যবিয়ে ও নারী নির্যাতন বন্ধে শপথ নিলেন ২৫০ রিকশাচালক

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১০ আগস্ট ২০২২  

রংপুরে বাল্যবিয়ে ও নারী নির্যাতন বন্ধে শপথ নিলেন ২৫০ রিকশাচালক             
রংপুরে বাল্যবিয়ে ও নারী-শিশু নির্যাতন বন্ধে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সোচ্চার থাকার শপথ নিয়েছেন ২৫০ রিকশাচালক। সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের মধ্যে সচেতনতার বার্তা ছড়াতে তাদের পরনে থাকবে ‌‌‍‘আমি বাল্যবিয়ে ও নারী-শিশু নির্যাতন বন্ধে সোচ্চার’ সম্বলিত টি-শার্ট (গেঞ্জি)। যেখানে লেখা রয়েছে জরুরি প্রয়োজনে ফোন করুন ১০৯ অথবা ৯৯৯ নম্বরে।

গতকাল মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) দুপুরে রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সচেতনতা সৃষ্টিতে ২৫০ রিকশাচালকের মধ্যে গেঞ্জি, বিস্কুট, স্টিকার বিতরণ করা হয়। বাল্যবিয়ে ও নারী-শিশু নির্যাতন বন্ধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে স্বর্ণনারী অ্যাসোসিয়েশন।
 
অনুষ্ঠানে এ উদ্যোগের প্রশংসা করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরপিএমপি) কমিশনার নুরে আলম মিনা বলেন, শুধু আইন করে বাল্যবিয়ে ও নারী-শিশু নির্যাতন বন্ধ করা সম্ভব নয়। এসব বন্ধে জনসচেতনতা বাড়াতে হবে। আমাদের সমাজে বাল্যবিয়ে, নারী ও শিশু নির্যাতনসহ সব ধরনের অপরাধের ব্যাপারে মানুষের মধ্যে যত সচেতনতা সৃষ্টি হবে, অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড তত কমে আসবে।

রিকশাচালকদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি তাদের দিয়েই আবার সচেতনতার এই বার্তা সবার কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগটি খুবই ভালো এবং প্রশংসার দাবি রাখে।  

রংপুর স্বর্ণনারী অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মঞ্জুশ্রী সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রংপুরের বিশিষ্ট সংগঠক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আকবর হোসেন, সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন রংপুর মহানগরের সভাপতি অধ্যক্ষ খন্দতকার ফখরুল আনাম বেঞ্জুম বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ রংপুরের সভাপতি সুশান্ত ভৌমিক, বিশিষ্ট লেখক ও সাংবাদিক আফতাব হোসেন, মেট্রোপলিটন কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম টিটো, বেগম রোকেয়া ফোরামের সভাপতি মনোয়ারা বেগম, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রুম্মানা জামান প্রমুখ।

এসময় অতিথিরা নারী ও শিশুবান্ধব পরিবেশ গড়তে জনসেচতনতা সৃষ্টিতে গণউদ্বুদ্ধকরণ শীর্ষক এই অনুষ্ঠানের প্রশংসা করেন। একই সঙ্গে বাল্যবিয়ে ও নারী-শিশু নির্যাতনে বন্ধে ইতিবাচক পরিবর্তনে রিকশাচালকরাও সক্রিয় ভূমিকা রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।