• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৯ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াতে মুসলিমদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান সংখ্যালঘু বলতে কোনো শব্দ নেই, আমরা সবাই বাঙালি: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আইএমএফের ঋণই প্রমাণ করে দেশের অর্থনীতির ভিত্তি মজবুত: অর্থমন্ত্রী করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি ৩.৮% প্রসারিত হয়েছে শিক্ষা নিয়ে ব্যবসা করার মানসিকতা পরিহার করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

নামাজ পড়তে যাওয়ার পথে ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৯ নভেম্বর ২০২২  

নামাজ পড়তে যাওয়ার পথে ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা               
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় মাসুদ রহমান নামে এক ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুবৃর্ত্তরা। সোমবার পৌনে ৮টার দিকে রাতে জেলার উপজেলার কোচাশহর ইউনিয়নের নয়ারহাট নামক শীতবস্ত্রের বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মাসুদ রহমান একই ইউনিয়নের কানাইপাড়া গ্রামের আবু রায়হান খট্টুর ছেলে। কোচাশহরে ন্যাশনাল হোসিয়ারি কারখানার মালিক তিনি।

মঙ্গলবার সকালে  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোবিন্দগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার জহুরুল ইসলাম।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, এশার নামাজ পড়তে বাজারের মসজিদে যাচ্ছিলেন মাসুদ। এ সময় হঠাৎ দুর্বৃত্তরা তার গলায় ছুরিকাঘাত করে। এ সময় মাসুদ দৌড়ে গিয়ে রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন। পরে বাজারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথেই মারা যান তিনি।

নিহতের ভাই শাহ আলম বলেন, রাস্তায় রক্তাক্ত অবস্থায় পড়েছিল মাসুদ। দুর্বৃত্তরা তার গলায় ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করেছে। পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তারা।

ডিউটি অফিসার জহুরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে কে বা কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এছাড়া অপরাধীদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি ইজার উদ্দীন ও কোচাশহর ইউপি চেয়ারম্যান জহরুল ইসলাম জাহিদ।

ওসি ইজার উদ্দীন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরিটি মসজিদের সামনে থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। কেন এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তা তদন্ত করে দেখছি। হত্যায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে বলে জানান তিনি।