• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৯ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াতে মুসলিমদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান সংখ্যালঘু বলতে কোনো শব্দ নেই, আমরা সবাই বাঙালি: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আইএমএফের ঋণই প্রমাণ করে দেশের অর্থনীতির ভিত্তি মজবুত: অর্থমন্ত্রী করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি ৩.৮% প্রসারিত হয়েছে শিক্ষা নিয়ে ব্যবসা করার মানসিকতা পরিহার করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

স্বচ্ছতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যেতে চাই: চিত্রলেখা নাজনীন

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০২২  

রংপুরের নতুন জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করে সততা, স্বচ্ছতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যাবার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন ড. চিত্রলেখা নাজনীন। এজন্য সাংবাদিকদের পরামর্শ, সহযোগিতা ও ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি কামনা করেছেন তিনি।

নবাগত এই জেলা প্রশাসক বলেন, যেখানে সমস্যা রয়েছে তা সমাধানে আমাদের চেষ্টা থাকবে। আমরা আমাদের সর্বোচ্চটুকু দিয়ে এটা করে যাবো। জনগণের সেবক হিসেবে আমরা নিয়োজিত। এই দায়িত্ব পালনে আমি ব্যক্তিগতভাবে কোনো দূরত্ব রাখতে চাই না। সততা, স্বচ্ছতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করব। কারণ এটা আমি অনুভব করি।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে রংপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় ড. চিত্রলেখা নাজনীন একথা বলেন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন উপ-পরিচালক (স্থানীয় সরকার) জিলুফা সুলতানা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট) শাহনাজ বেগম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ফিরুজুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) গোলাম রব্বানী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এ.ডব্লিউ.এম. রায়হান শাহ্ প্রমুখ।

রংপুর জেলার ২৫০ বছরের ইতিহাসে ড. চিত্রলেখা নাজনীন জেলা প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ পাওয়া প্রথম নারী তিনি। এ কারণে বেগম রোকেয়ার স্মৃতি বিজড়িত রংপুরে দায়িত্ব পেয়ে নিজেকে ধন্য উল্লেখ করে ড. চিত্রলেখা নাজনীন বলেন, সাংবাদিকরা আমাদের কাজের প্রতিচ্ছবি তুলে ধরেন। তারা প্রতীকি অর্থে আয়না। আমরা যা করি বা করছি, সেটাই তারা মানুষের সামনে আনেন। সাংবাদিকদের লেখনির মাধ্যমে আমাদের কাজ সম্পর্কে মানুষ জানতে পারেন এবং মূল্যায়ন করে।

ডিসি আরও বলেন, স্থানীয় পর্যায় থেকে জাতীয় পর্যায়ে উন্নয়নসহ সরকারের মিশন-ভিশন বাস্তবায়নে আমরা সাধ্যমতো কাজ করব। আমার পূর্ব অভিজ্ঞতা এবং সাংবাদিকদের সহযোগিতা ও পরামর্শ নিয়ে আমি দায়িত্ব পালন করতে চাই। আমরা চাই জেলা প্রশাসনের সব কার্যক্রমে সাংবাদিকদের সহযোগিতা ও পরামর্শ থাকুক।

শুদ্ধাচারের গুরুত্ব তুলে ধরে চিত্রলেখা নাজনীন বলেন, শুদ্ধাচার বললেই তো শুদ্ধাচার হয়ে যায় না, এটা চর্চা করতে হয়। পরিবার থেকে শুরু করে আমাদের ক্যারিয়ার, এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত শুদ্ধাচার চর্চা করতে হবে। আমাদের যার যা অবস্থান সেখান থেকেই এটা অনুভব করে দায়িত্ব পালন করা উচিত। 

তিনি আরও বলেন, আমি রংপুরের সমস্যা এবং করণীয় সম্পর্কিত ইস্যুগুলো নিয়ে কাজ করতে চাই। যেখানে জেলা প্রশাসনের নজর দেওয়া দরকার, সেই বিষয়গুলো আমাকে অবগত করবেন। আমি মনে করি সাংবাদিকদের সহযোগিতা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। আপনারা ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে পাশে থাকবেন। বিগত জেলা প্রশাসকের উদ্যোগ এবং অসমাপ্ত কাজগুলোকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে। আমরাও অটুট লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই।

এ সময় ভারতের সোদপুরে থাকা মহিয়সী বেগম রোকেয়া সাখাওয়াতের কবরটি বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারেও জানতে চাইলে নবাগত জেলা প্রশাসক ড. চিত্রলেখা নাজনীন বলেন, পূর্বের জেলা প্রশাসকের প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়নে কথাবার্তা হচ্ছে। এটি দুটি রাষ্ট্রের সরকার পক্ষের কূটনৈতিক বিষয়। ইতোমধ্যে রোকেয়ার দেহাবশেষ পায়রাবন্দে আনার ব্যাপারে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দফতরে আবেদন করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে দ্রুত সময়ের মধ্যে আমরা একটি ভালো সংবাদ পাবো।

মতবিনিময় সভায় রংপুর প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ক্লাব, সিটি প্রেসক্লাব, রিপোর্টার্স ইউনিটি, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাব, টিসিএ রংপুর, ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।