• বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৬ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

রংপুরে যথাযোগ্য মযার্দায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালিত

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৬ মার্চ ২০২৩  

রংপুরে যথাযোগ্য মযার্দায় মহান স্বাধীনতা দিবস পালিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রবিবার সূর্যোদয়ের সাথে সাথে নগরীর মডার্ন মোড়স্থ স্বাধীনতা স্মৃতিস্তম্ভ অর্জন, বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও সুরভী উদ্যানস্থ শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।

শ্রদ্ধা জানান, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার মোঃ সাবিরুল ইসলাম, সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি মোহাঃ আবদুল আলীম মাহমুদ, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার নুরে আলম মিনা, রংপুর জেলা প্রশাসক ড. চিত্রলেখা নাজনীন, জেলা পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরী, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোছাদ্দেক হোসেন বাবলুসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এরপর রংপুর শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে পুলিশ, আনসার, বিএনসিসি, কারারক্ষী, ফায়ার সার্ভিস ও স্কাউটের অংশগ্রহণে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। কুচকাওয়াজ শেষে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়।

দুপুরে রংপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে নারীদের আলোচনা সভা এবং শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়। বিকেলে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এছাড়া দিবসকে ঘিরে হাসপাতাল, এতিমখানা, কারাগারে উন্নতমানের খাবার বিতরণ, মসজিদ, মন্দিরসহ বিভিন্ন ধর্মীয় উপসানালয়ে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।

এদিকে বর্ণিল আয়োজন ও যথাযোগ্য মর্যাদায় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়,স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালের সামনে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ। শোভাযাত্রাটি পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে স্বাধীনতা স্মারকের সামনে এসে শেষ হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগ, দপ্তর, আবাসিক হল, ইনস্টিটিউটসহ শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন সংগঠন বর্ণাঢ্য সাজে অংশগ্রহণ করেন। এরপর স্বাধীনতা স্মারকে মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. সরিফা সালোয়া ডিনা ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মজিব উদ্দিন আহমদ।

এরপর পর্যায়ক্রমে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, বিভাগ, আবাসিক হল, ইনস্টিটিউট, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, কর্মচারী ইউনিয়নসহ শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। এর আগে স্বাধীনতা সংগ্রামের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন বেরোবি উপাচার্য।