• বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৫ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

গাইবান্ধায় শাম্মি হত্যায় অভিযুক্ত পলাতক স্বামী গ্রেপ্তার

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী থানার শাম্মি হত্যা মামলার প্রধান আসামি মো. জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর একটি দল বুধবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর আদাবর থানাধীন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেপ্তার করে।

জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্য ও ঘটনার বিবরণ দিয়ে র‍্যাব-৪ এর সহকারী পরিচালক এএসপি মাজহারুল ইসলাম জানান, শাম্মি বেগমের সঙ্গে গ্রেপ্তার জাহাঙ্গীর আলমের (৩২) প্রায় ১০ বছর আগে বিয়ে হয়। সংসার জীবনে তাদের ২টি ছেলে সন্তান রয়েছে। 

মাঝেমধ্যেই জাহাঙ্গীর এবং তার পরিবারের সদস্যরা পারিবারিক বিষয়ে শাম্মি বেগমকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতো। শাম্মি বেগম তার ২ সন্তানের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে সংসার করে আসছিল।

জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানা যায়, ২০২২ সালের ২১ সেপ্টেম্বর বিকেলে জাহাঙ্গীর আলম ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

ওই দিন সন্ধ্যায় গ্রেপ্তার জাহাঙ্গীরের ভাতিজা তার ব্যবহৃত মোবাইল থেকে নিহত শাম্মি বেগমের ছোট ভাইয়ের মোবাইলে কল দিয়ে মৃত্যুর বিষয়টি জানায়। 

এ ঘটনায় নিহত শাম্মির বাবা বাদী হয়ে গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী থানায় জাহাঙ্গীর আলমসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।

স্থানীয় গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়, ঘটনার পর থেকে আসামি জাহাঙ্গীর ছদ্মবেশে ঢাকার আদাবর থানাধীন এলাকায় অবস্থান করছিল।

সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর একটি দল অভিযান পরিচালনা করে জাহাঙ্গীর আলমকে আদাবর থেকে গ্রেপ্তার করে। 

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার জাহাঙ্গীর স্ত্রী শাম্মি বেগমকে হত্যা মামলার সঙ্গে সরাসরি জড়িত বলে স্বীকার করেছে। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।