• শনিবার ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩ ||

  • অগ্রহায়ণ ২৪ ১৪৩০

  • || ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব সংসদে গৃহীত

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাব সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়েছে। গত ৫ জানুয়ারি সংবিধান অনুযায়ী বছরের প্রথম অধিবেশনের প্রথমদিনে সংসদে রাষ্ট্রপতি এ ভাষণ দেন।

রীতি অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির ভাষণ সম্পর্কে চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী ধন্যবাদ প্রস্তাব উত্থাপন করেন। প্রস্তাবটি সমর্থন করেন সরকারি দলের সদস্য শহীদুজ্জামান সরকার।

ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনার ২১তম এবং শেষদিনে বুধবার অংশ নেন- সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলের নেতা রওশন এরশাদ, সংসদ উপনেতা বেগম মতিয়া চৌধুরী, বিরোধী দলের উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের ও চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী।

আলোচনায় অংশ নিয়ে এমপিরা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য ও দক্ষ নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক কাঠামোর ব্যাপক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। দেশের জিডিপিতে তার প্রভাব পড়ছে।

তারা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের কৃষি উন্নয়ন, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, যোগাযোগ, আর্থ-সামাজিক, শিক্ষা, যুব ও ক্রীড়া, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি)সহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরেন।

সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী বলেন, দেশের অর্থনৈতিক কাঠামোতে ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে যেখানে কৃষি, শিল্প ও সেবা খাত জিডিপিতে যথাক্রমে ১২, ৩৩ ও ৫১ শতাংশ অবদান রাখছে।

যেহেতু দেশের অর্থনৈতিক কাঠামোর পরিবর্তন হচ্ছে এবং সে কারণেই দেশ একের পর এক অসাধারণ সাফল্যের সাক্ষী হচ্ছে উল্লেখ করে উপনেতা বলেন, অর্থনৈতিক অবকাঠামোগত পরিবর্তনের কারণে আমাদের রফতানি ও বিদেশি বিনিয়োগও বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি বলেন, ২০২১-২২ সালে দেশের সামগ্রিক রফতানি ব্যয় ছিল ৬০.৯৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং মোট বিদেশি বিনিয়োগ ব্যয় ছিল ৩.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

বিএনপির ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করে উপনেতা বলেন, রাজনীতিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ও অভিযোগ থাকতে পারে কিন্তু বিএনপি সাধারণত অনৈতিক পথ অনুসরণ করে রাজনীতিতে মিথ্যাচার করছে। এ সময় তিনি ২০০৪ সালে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা কথা উল্লেখ করেন।

আলোচনায় অংশ নিয়ে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ উন্নয়নের সুফল জনগণের কাছে পৌঁছাতে সর্বক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান।

বিরোধী দলের উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের সড়ক দুর্ঘটনা এবং বায়ু দুষণ রোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান।

সরকারের সাফল্যের বিস্তারিত তুলে ধরে দেশকে শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধির দিকে পরিচালিত করার জন্য সময়োপযোগী ভাষণ দেওয়ার জন্য এমপিরা রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ জানান।

এর আগে, তারা স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদানের জন্য গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।