• বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৫ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল নিয়ে আশাবাদী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ অক্টোবর ২০২৩  

 
রাষ্ট্রীয় সফরে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়েছিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সফরে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকাকে গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষাত্কার দিয়েছেন তিনি। দেশের নানা ইস্যুতে কথা বলেছেন শেখ হাসিনা। সংবাদমাধ্যমের প্রশ্ন মালায় গুরুত্ব পেয়েছে খেলা। খেলা নিয়েও প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হলে সেখানে তিনি তার ইচ্ছার কথা জানিয়ছেন, তিনি বাংলাদেশের খেলা নিয়ে কী স্বপ্ন দেখেন সেটিও প্রকাশ করেছেন। আর কয়েক দিন পরই ভারতে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আসর। দুয়ারে কড়া নাড়ছে ২২ গজের খেলা।

ভয়েস অব আমেরিকাকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে প্রধানমন্ত্রী বিশ্বকাপ নিয়ে প্রশ্নের জবাবে বলেছেন, ‘আমরা সব সময় আশাকরি যে, বিশ্বকাপে আমরা ভালো খেলা দেখতে পারবো।’

ক্রিকেটে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মঞ্চ ৫০ ওভারের খেলা ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ৫ অক্টোবর বিশ্বকাপের পর্দা উঠবে। হাতে তিন দিন বাকি। বিশ্বকাপে লড়াই করার জন্য সাকিব বাহিনীর বাংলাদেশ এখন ভারতে। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজের প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন ভয়েজ আমেরিকাকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের কাছে প্রধানমন্ত্রী কী প্রত্যাশা করেন সেই প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘আমি তাদের বলব যে, বাংলাদেশের সম্মানটা যেন বজায় থাকে। খেলোয়াড়রা তাদের চেষ্টার সবটুকু দিয়ে খেলবে। সবটুকু ঢেলে দেবে এবং আন্তরিকতার সঙ্গে খেলবে—সেটাই আমি চাই।’

তিনি বলেন, ‘আমি সব সময় খেলা নিয়ে আশাবাদি। বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আমরা যে খেলার সুযোগ পেয়েছি এটাই তো সবথেকে ভালো। দেখা যাক, ভালোভাবে  খেলতে পারলে ভালো রেজাল্ট করতেও পারবে। আমিও আশা রাখছি। দেশের সম্মানটা বজায় রাখবেন ক্রিকেটাররা।’

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রীড়া পরিবারের মানুষ। তার বাবা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একজন ফুটবলার ছিলেন। ভাই শেখ কামাল, শেখ জামালও খেলোয়াড় ছিলেন। শেখ হাসিনা নিজেও একজন খেলাধুলা অন্তঃপ্রাণ মানুষ, সেকথা পৃথিবীর সব রাষ্ট্রই এখন জেনে গেছে। রাষ্ট্রীয় কাজে পৃথিবীর যেখানেই অবস্থান করুন দেশের খেলাধুলার খবর নিতে ভুল করেন না। দেশে অবস্থানকালে শত ব্যস্ততার মধ্যেও মাঠে গিয়ে খেলা দেখার চেষ্টা করেন। বিশেষ করে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা যখন তখন প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে গিয়ে দেখা করছেন। কোনো সমস্যা হলে সমাধানের চেষ্টা করেন এই মানুষটি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমার সঙ্গে সবসময় ওদের একটা যোগাযোগ থাকে। আসার (যুক্তরাষ্ট্রে) আগেও আমি খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলেছি, সংগঠকদের সঙ্গেও কথা বলেছি। আমি সবসময়ই খেয়াল রাখি। খেলাধুলার দিকে যাতে আমাদের ছেলেমেয়েরা ভালো করে সেদিকে সবসময় আমার দৃষ্টি থাকে এবং সবরকম সহযোগিতা করে থাকি।’

বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে দল গঠন নিয়ে দেশের ক্রিকেট টালমাটাল। দল গঠন করতে বিসিবি বির্তক ছড়িয়েছে। নানা প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হচ্ছে বিসিবি থেকে শুরু করে সাবেক ক্রিকেটারদের। ঠিক এমন সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানালেন তার চাওয়ার কথা—দেশের সম্মান বজায় রাখবে ক্রিকেটাররা। এই মেসেজ ক্রিকেটারদের কাছে পৌঁছে গেছে। তারাও চাইছেন পেছনে যা হয়েছে  সেগুলো নিয়ে ভাবছেন না। দলের বাইরে যা কিছু ঘটেছে তা নিয়ে তারা ভাবছেন না। বিশ্বকাপ নিয়ে ভাবছেন।