• বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৬ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

‘অ্যানিমেশন সিরিজ ‘খোকা’ অচিরেই টেলিভিশন চ্যানেলে দেখা যাবে’

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩০ অক্টোবর ২০২৩  

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর সহনশীলতা, মানবিকতা এবং পরোপকারিতা এই বিষয়গুলো আমাদের শিশু, কিশোর, তরুণ এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতেই ‘খোকা’ অ্যানিমেশন সিরিজটি নির্মাণ করা হয়েছে। সিরিজটি অচিরেই বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্মে দেখা যাবে।

রোববার বঙ্গবন্ধু সামরিক জাদুঘরের স্টার সিনেপ্লেক্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শৈশব-কৈশোরকে প্রাধান্য দিয়ে নির্মিত অ্যানিমেশন সিরিজ ‘খোকা’ এর প্রিমিয়ার শোর উদ্বোধন করা হয়। সিরিজটি উপভোগ শেষে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ‘মোবাইল গেইম ও অ্যাপ্লিকেশনের দক্ষতা উন্নয়ন’ প্রকল্পের উদ্যোগে ১০ পর্বের ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিটের এই অ্যানিমেশন সিরিজ নির্মাণ করা হয়। আজ এর ৫টি পর্ব প্রদর্শন করা হয়।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা আইসিটি বিভাগ থেকে বেশ কয়েকটা উদ্যোগ নিয়েছি। তার মধ্যে একটা হচ্ছে খোকা। বঙ্গবন্ধুকে তার বাবা-মা এবং আত্মীয়-স্বজন সবাই ছোটবেলায় আদর করে খোকা বলে ডাকতো। খোকা জন্মের পর একটা প্রত্যন্ত অঞ্চল টুঙ্গিপাড়া গ্রাম থেকে কীভাবে বড় হয়ে আস্তে আস্তে খোকা থেকে মুজিব, মুজিব থেকে মুজিব ভাই, মুজিব ভাই থেকে বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু থেকে জাতির পিতায় পরিণত হলেন সেটি আমরা এমন একটি মাধ্যমে তুলে ধরতে চেয়েছি। যে মাধ্যমটি আমাদের শিশু, কিশোর ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় মাধ্যম। সে মাধ্যমটি অ্যানিমেশন মাধ্যম।

তিনি বলেন, দেশের জনসাধারণ ও নতুন প্রজন্মকে মানবিক হতে ও দেশপ্রেমের প্রতি উদ্বুদ্ধ করতে অ্যানিমেটেড সিরিজটি বিশেষ অবদান রাখবে। দেশীয় অ্যানিমেটর দ্বারা উন্নয়নকৃত অ্যানিমেশনের মাধ্যমে তৈরি হওয়ায় সব বয়সী দর্শকেরা সহজেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শৈশব-কৈশরের জীবনী সম্পর্কে সহজে জানতে পারবেন।

অ্যানিমেশন সিরিজটি যৌথভাবে তৈরি করেছে মার্স সল্যুশন, টিম এসোসিয়েট, ম্যাজিক ইমেজ এবং প্রোল্যান্সার স্টুডিও।