• রোববার ১৪ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • চৈত্র ৩০ ১৪৩০

  • || ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

জলবায়ু কার্যক্রমে সহযোগিতা বাড়াবে এডিবি: পরিবেশমন্ত্রী

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ এপ্রিল ২০২৪  

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বাংলাদেশের সম্পদের খুবই প্রয়োজন। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক জলবায়ু কর্মকাণ্ডে বাংলাদেশে সহযোগিতা বাড়াবে।  

রোববার বাংলাদেশ সচিবালয়ে তার কার্যালয়ে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফাতিমা ইয়াসমিনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে এ কথা বলেন তিনি।

জলবায়ু কার্যক্রমে জন্য ৯ বিলিয়ন ডলারের বিস্ময়কর প্রয়োজনের সঙ্গে মন্ত্রী অবকাঠামো উন্নয়ন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং শিক্ষার জন্য সরকারের বরাদ্দ ৩.৫ বিলিয়ন ডলারের কথা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, সরকার আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগীদের সহায়তায় বাংলাদেশি প্রকল্প চায়।

অভিযোজন প্রচেষ্টায় বিনিয়োগে বেসরকারি খাতের অনীহার কথা স্বীকার করে মন্ত্রী অভিযোজন নগদীকরণ ও স্থানীয়ভাবে নেতৃত্বাধীন উদ্যোগকে অগ্রাধিকার দেওয়ার গুরুত্বের ওপর জোর দেন। এছাড়া আন্তঃসীমান্ত বায়ু দূষণ মোকাবিলার তাৎপর্যের উপর জোর দেন মন্ত্রী, যা বাংলাদেশের বায়ু দূষণের ৩০ শতাংশের জন্য দায়ী। 

বৈঠ‌কে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফাতিমা ইয়াসমিন ডেল্টা প্ল্যান, মুজিব জলবায়ু সমৃদ্ধি পরিকল্পনা এবং জাতীয় অভিযোজন পরিকল্পনার মতো গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ বাস্তবায়নে বাংলাদেশকে সহায়তা করার জন্য এডি‌বি এর অটল প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

ভাইস প্রেসিডেন্ট ইয়াসমিন বাংলাদেশের সঙ্গে এডি‌বির দৃঢ় অংশীদারিত্ব এবং জলবায়ু পরিবর্তনের স্থিতিস্থাপকতার উপর উচ্চতর ফোকাসসহ রূপান্তরমূলক প্রকল্প হাতে নেয়ার জন্য তার উৎসর্গের বিষয়টি পুনর্ব্যক্ত করেন।

মোট ৯.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বরাদ্দের মধ্যে এডি‌বি বাংলাদেশের জন্য ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে, যা দেশের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যগুলোর প্রতি তার গভীর প্রতিশ্রুতিকে নির্দেশ করে।

বৈঠকটি বাংলাদেশ ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের মধ্যে চলমান সহযোগিতার ক্ষেত্রে একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক চিহ্নিত করে, যা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলা এবং টেকসই উন্নয়নকে উৎসাহিত করার জন্য ভাগ করা অঙ্গীকার তুলে ধরে।