• বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ক্ষমতায়ন ছাড়া সমাজে নারীর অবস্থান উন্নত হবে না: প্রধানমন্ত্রী অপপ্রচারকারীদের কনস্যুলার সেবা দেবে না কানাডার বাংলাদেশ মিশন ‘দেশের ফুটবল দলকে বিশ্বকাপের উপযোগী করতে কাজ চলছে’ ট্রেনের ধাক্কায় ইউএনও অফিসের নৈশপ্রহরীর মৃত্যু ‘পলিথিন প্রস্তুতকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে’

মেট্রোরেলের ৮ কোচ ও চার ইঞ্জিন নিয়ে এলো এমভি ভেনাস ট্রায়াম্ফ

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২ অক্টোবর ২০২২  

মেট্রোরেলের ৮ কোচ ও চার ইঞ্জিন নিয়ে এলো এমভি ভেনাস ট্রায়াম্ফ             
দ্বাদশ চালানে মেট্রোরেলের আটটি কোচ ও চারটি ইঞ্জিন নিয়ে মোংলা বন্দর জেটিতে ভিড়েছে বিদেশি জাহাজ এমভি ভেনাস ট্রায়াম্ফ। গতকাল শনিবার (১ অক্টোবর) বিকাল ৫টায় বন্দরের ৮ নম্বর জেটিতে ভিড়ে জাহাজটি। জাহাজটিতে মেট্রোরেলের মেশিনারিসহ আরও একটি পাওয়ার প্লান্টেরও মেশিনারি পণ্যও রয়েছে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এম মুসা জানান, আটটি রেলওয়ে কোচ ও চারটি ইঞ্জিন নিয়ে গত ৮ সেপ্টেম্বর জাপানের কোবে বন্দর থেকে ছেড়ে আসে পানামা পতাকাবাহী জাহাজ এমভি ভেনাস ট্রায়াম্ফ। পথিমধ্যে কোরিয়ার মারসান বন্দর থেকে পাওয়ার প্লান্টের মেশিনারি পণ্য নিয়ে আসে জাহাজটি। 

তিনি আরও জানান, মেট্রোরেলের কোচ ও ইঞ্জিনের পাশাপাশি ৪৪০ মেট্রিক টন ওজনের মেশিনারি ও পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি লিমিটেডের ৩৬৭ মেট্রিক টন ওজনের ৭৫ প্যাকেট মেশিনারি পণ্য নিয়ে ভেনাস ট্রায়াম্ফ বিকালে জেটিতে ভিড়ে।

জাহাজ ভেনাস ট্রায়াম্ফের স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনসিয়েন্ট স্টিম শিপ কোম্পানির ব্যবস্থাপক মো. ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, জাহাজটিতে আসা কোচ ও ইঞ্জিন রবিবার সকাল ৭টা থেকে খালাস শুরু হবে। খালাসের সঙ্গে সঙ্গেই তা বার্জে (নৌযান) করে নৌপথে ঢাকার উত্তরার দিয়াবাড়ী মেট্রোরেলের ডিপোতে নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, জাহাজটিতে ঢাকার পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি লিমিটেডের যে বৈদ্যুতিক মেশিনারি পণ্য এসেছে তা সন্ধ্যা ৬টা থেকে খালাস শুরু হয়েছে। এগুলোও নদীপথে ঢাকা নেওয়া হবে।

ওয়াহিদুজ্জামান আরও জানান, এর আগে গত ২২ আগস্ট আটটি রেলওয়ে কোচ ও চারটি ইঞ্জিনসহ ৩৪ প্যাকেট মেশিনারি পণ্য নিয়ে এমভি হোসি ক্রাউন এই বন্দরে এসেছিল। এরপর শনিবার বিকালে আটটি কোচ ও চার ইঞ্জিনসহ এই পর্যন্ত মেট্রোরেলের ৭৮টি কোচ ও ৩৮টি ইঞ্জিন এসেছে। মেট্রোরেলের ১৪৪টি কোচ ও ইঞ্জিনের মধ্যে ১১৬টি কোচ-ইঞ্জিন এসেছে। বাকি ২৮টি কোচ ও ইঞ্জিন ধারাবাহিকভাবেই এই বন্দর দিয়েই আমদানি, খালাস ও পরিবহন হবে।