• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৯ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াতে মুসলিমদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান সংখ্যালঘু বলতে কোনো শব্দ নেই, আমরা সবাই বাঙালি: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আইএমএফের ঋণই প্রমাণ করে দেশের অর্থনীতির ভিত্তি মজবুত: অর্থমন্ত্রী করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি ৩.৮% প্রসারিত হয়েছে শিক্ষা নিয়ে ব্যবসা করার মানসিকতা পরিহার করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

ডা. এস এ মালেকের মৃত্যুতে বেরোবি শিক্ষক সমিতির শোক ও শ্রদ্ধা

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০২২  

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এস এ মালেকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি) শিক্ষক সমিতি। 

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. শরিফুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক, ভ‚গোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ শোক ও শ্রদ্ধা জানান তারা। 

বিবৃতিতে শিক্ষক নেতারা বলেন, ‘এই মহান বাঙালি সন্তানের মৃত্যুতে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার বিশেষভাবে শোকাহত। দেশ ও জাতি গঠনে তাঁর অবদান জাতি সুদূর ভবিষ্যতেও শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে বলেই আমাদের বিশ্বাস। বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছে।’

বিবৃতিতে শিক্ষক নেতারা জানান, ‘বর্ণাঢ্য ও ঘটনাবহুল জীবনে তিনি ৫২’র ভাষা আন্দোলন, ৬৬’র ছয় দফা, ও বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে অংশগ্রহণসহ বাংলাদেশ সৃষ্টির প্রাক্কালের প্রায় সকল রাজনৈতিক কর্মকাÐেই সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে ১৯৭৩ সালের নির্বাচনে তিনি ফরিদপুর-১ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেছিলেন। মৃত্যুর আগমুহূর্ত পর্যন্ত তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি ছিলেন।’

প্রসঙ্গত, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এস এ মালেক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) রাত ১১টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করার মাধ্যমে তাঁর বর্ণাঢ্য ও সমৃদ্ধ জীবনের সমাপ্তি ঘটে। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি বার্ধক্যজনিত সমস্যাসহ শরীরের নানা জটিলতায় ভুগছিলেন।