• শুক্রবার   ২২ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৮

  • || ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু এক্সিবিশন সেন্টার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী একই দিনে উদ্‌যাপিত হলো তিন ধর্মের উৎসব চীন থেকে এলো আরো ৫৫ লাখ সি‌নোফা‌র্মের টিকা শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশে সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী যেই হোক ব্যবস্থা নেয়া হবে’

`৭০ শতাংশ মানুষের দেহে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে` 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ম্যাগসাইসাই পুরস্কারজয়ী বিজ্ঞানী ডক্টর ফেরদৌসী কাদরী বলেছেন, দেশে এখন করোনা সংক্রমণ কমে এসেছে। বিশ্বের প্রতিটি দেশেই এ সংক্রমণ বেড়ে গিয়ে আবারও কমছে। কমার পেছনে অন্যতম কারণ হলো অ্যান্টিবডি। ভাইরাসটির বিরুদ্ধে আমাদের দেশেই ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ মানুষের দেহে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

ডক্টর ফেরদৌসী কাদরী বলেন, বাংলাদেশে ডেল্টার তান্ডব কমে সংক্রমণের হার এখন নিম্নমুখী। তবে ডেল্টার মতো মারাত্মক ভ্যারিয়েন্টের পুনরায় সংক্রমণের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। এর মতো অতিসংক্রামক ভাইরাস যে আর আসবে না, সেটি নিশ্চিত করে বলা যায় না।

গত শুক্রবার তার র‌্যামমন ম্যাগসাইসাই পুরস্কার-২০২১ প্রাপ্তি উপলক্ষে আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সংক্রমণ থেকে মুক্ত হতে আমাদের আরও সচেষ্ট হতে হবে। নিয়মিত হাত ধুতে হবে, মাস্ক পরতে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এ ছাড়া টিকা কার্যক্রমকে গতিশীল করার পাশাপাশি আরও ব্যাপক সংখ্যক মানুষকে টিকার আওতায় আনতে হবে। প্রসঙ্গত, গত ৩১ আগস্টর্ যামন ম্যাগসাইসাই অ্যাওয়ার্ড ফাউন্ডেশনের বোর্ড অব ট্রাস্টি ২০২১ সালের পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরী এ বছর এ পুরস্কার পেয়েছেন।

বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরী কর্মজীবনের একেবারে শুরুর দিকে মেডিকেল গবেষণার সিদ্ধান্ত নেন। ১৯৮৮ সালে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশে (আইসিডিডিআর,বি) যোগদান করেন তিনি। বর্তমানে আইসিডিডিআর,বির ইমিউনোলোজি বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

কর্মজীবনের শুরু থেকেই ডক্টর কাদরী সংক্রামক ব্যাধি, ইমিউনোলজি, ভ্যাকসিন উদ্ভাবন এবং ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ওপর মনোনিবেশ করেন।

র্যামন ম্যাগসাইসাই অ্যাওয়ার্ড ফাউন্ডেশনের বোর্ড অব ট্রাস্টি পুরস্কার ঘোষণার সময় বলেছেন, লাখ লাখ মানুষের উপকারে টিকার উন্নয়নে নিবেদিত ভূমিকার জন্য ডক্টর ফেরদৌসী কাদরীকে এ পুরস্কারে ভূষিত করা হলো।