• রোববার   ২৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৯

  • || ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার প্রশংসা পর্তুগালের মরণোত্তর ‘দ্যাগ হ্যামারশোল্ড’ পেলেন দুই বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী দেশে ভেনামি চিংড়ি চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের শিল্পনগরী ও অর্থনৈতিক অঞ্চল হচ্ছে দিনাজপুর: হুইপ ইকবালুর রহিম আরও সময় নিয়ে বৈঠকের প্রস্তুতি নিতে চায় দুই ঢাকা-দিল্লি

আপিল বিভাগের প্রথম হিন্দু নারী বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ   

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৯ জানুয়ারি ২০২২  

দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন কৃষ্ণা দেবনাথ। দেশের ইতিহাসে তিনিই প্রথম নারী হিন্দু বিচারপতি যিনি আপিল বিভাগে নিয়োগ পেলেন। আবার নারী হিসেবে তিনি আপিল বিভাগের তৃতীয় বিচারপতি। 

এর আগে আপিল বিভাগে দুইজন নারী বিচারপতি দায়িত্ব পালন করেছেন। তারা হলেন বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা ও বিচারপতি জিনাত আরা। তারা দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন শেষে অবসর গ্রহণ করেছেন। গত রোববার (৯ জানুয়ারি) বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। 

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নবনিযুক্ত বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী এই অঙ্গন থেকে দুর্নীতি দূর করার যে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন, নিশ্চয়ই আমরা তার সাথী হব। আর ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় অবশ্যই সচেষ্ট থাকব।’ 

তিনি কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাষায় বলেন, ‘তোমার পতাকা যারে দাও তারে বহিবারে দাও শক্তি। তোমার সেবার মহান দুঃখ সহিবারে দাও ভক্তি।’

১৯৫৫ সালের ১০ অক্টোবর বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ রাজবাড়ীতে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিজ্ঞানে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ। এরপর তিনি ১৯৮১ সালের ৮ ডিসেম্বর জুডিশিয়াল সার্ভিসে মুনসেফ হিসাবে যোগদান করেন। ১৯৯৮ সালের ১ নভেম্বর পদোন্নতি পান জেলা ও দায়রা জজ হিসাবে। ১২ বছর জেলা জজ হিসাবে দায়িত্ব পালনের পর ২০১০ সালের ১৮ এপ্রিল হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসাবে নিয়োগ পান। দুই বছর দক্ষতার সঙ্গে অতিরিক্ত বিচারক হিসাবে দায়িত্ব পালনের পর তাকে স্থায়ী বিচারপতি হিসাবে নিয়োগ দেওয়া হয়। 
১৯৯০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভাড ল’ স্কুলে সার্টিফিকেট কোর্সে অংশ নেন বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথ। ১৯৯৬ সালে কানাডায় অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল উইমেন জাজেস অ্যাসোসিয়েশনের সম্মেলনে যোগ দেন। ২০১২ সালে যোগ দেন যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত ন্যাশনাল উইমেন জাজেস অ্যাসোসিয়েশনের সম্মেলনে।