• সোমবার ২০ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪৩১

  • || ১১ জ্বিলকদ ১৪৪৫

বাদাম যেভাবে খেলে উপকার পাবেন দ্বিগুণ

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৪ আগস্ট ২০২৩  

শরীর সুস্থ রাখতে বাদাম খেতে বলা হয়। বাদামে প্রোটিন, নিকোটিনিক অ্যাসিড, থায়ামিন, কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, মিনারেল, আয়রন, ফসফরাস এবং আরও অনেক পুষ্টি উপাদান পাওয়া যায়। সঠিক উপায়ে বাদাম খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়, আপনাকে অনেক রোগ থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে।

বাদাম খাওয়ার সঠিক সময় ও উপকারিতা জেনে নেয়া যাক-

বাদাম

বাদাম খারাপ কোলেস্টেরল কমাতে এবং ভালো কোলেস্টেরল উন্নত করতে সাহায্য করে। এগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রোপার্টি, ভালো ফ্যাট, প্রোটিন এবং ভিটামিন-ই পাওয়া যায়। এগুলো বার্ধক্যের লক্ষণ কমায়। বাদাম খেলে হার্ট সংক্রান্ত রোগও কমে। আপনি চাইলে বাদাম কাঁচা খেতে পারেন বা ৫-৬টি বাদাম সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খেতে পারেন। বাদাম তেল রান্না করা যাবে না, তাই এটি শুধু সালাদে ব্যবহার করা যেতে পারে।

কাজু

গবেষণা অনুসারে, কাজুতে থাকা স্টিয়ারিক অ্যাসিড এলডিএল মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। এগুলিতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, ভাল চর্বি এবং ম্যাংগানিজ, জিংক, ম্যাগনেসিয়ামের মতো খনিজ রয়েছে। যা হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। সালাদ, ফল, স্মুদি এবং পোরিজ ইত্যাদি সাজাতেও কাজু ব্যবহার করা যেতে পারে। কাজু দুধ থেকে মিল্কশেক এবং স্মুদি তৈরি করা যায়।

আখরোট

আখরোট ওমেগা ৩ সমৃদ্ধ। এটি আপনার মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। আখরোট কোলেস্টেরল কমাতে এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। এর জন্য আস্ত আখরোট সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে পরের দিন খেয়ে ফেলুন। এটি হজমে সাহায্য করে।

পেস্তা

পেস্তা খেলে হার্টের স্বাস্থ্য, হিমোগ্লোবিন লেভেল, ইমিউন সিস্টেমের উন্নতি ঘটে। এগুলো ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও উপকারী। প্লেইন রোস্টেড পেস্তা সালাদে মেশাতে পারেন। মিল্কশেকের সঙ্গে মিশিয়ে খেতে পারেন।