• রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৪ ১৪২৮

  • || ১০ সফর ১৪৪৩

সর্বশেষ:
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রত্যেক নাগরিকের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়েছে-সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে রক্তদান কর্মসূচি শেখ হাসিনার নেতৃত্ব ও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে গুরুত্ব দিয়ে আসছে সৌদি আরব প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন হাকিমপুরের মৃৎশিল্পীরা দেশের ৬৮টি কারাগারের ৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

পিৎজা খেয়েও এক সপ্তাহে কমবে ওজন   

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২১  

নাগরিক বিকাল-সন্ধ্যাগুলোতে আজকাল ছোলা, পিঁয়াজু, ডালপুরি, পাকাড়োর জায়গায় স্থান করে নিয়েছে পিৎজা, স্যান্ডউইচ। আর অতিমারিতে অনলাইন খাবারের অর্ডার বেড়ে গেছে। সেখানেও সবাই বেছে নিচ্ছেন পিৎজাকে। কারণ দুনিয়াজুড়েই পিৎজা দারুণ জনপ্রিয়।

শুধু বাড়িতেই নয়, অফিসেও হঠাৎ ট্রিটগুলোতে পিৎজা খাওয়ার চাহিদা প্রতিদিনই বাড়ছে। এখন শহরে অনেক পিৎজার দোকান। পিৎজা একদিকে যেমন সুস্বাদু, অন্যদিকে অর্ডার দিলেই কম সময়ের মধ্যে বাড়িতে হয়ে যায় হাজির। অনেকের ধারণা পিৎজা খেলে ওজন বেড়ে যাওয়াটা এক প্রকার নিশ্চিত। তবে বাড়িতে তৈরি করে নিতে পারেন এমন এক পিৎজা যা আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করবে!

উপমহাদেশে যেখানে প্রতি ৩ জনে ১ জন ওজন কমানোর ধারণা নিয়ে ভুগে চলেছেন, সেখানে পুষ্টিবিদ এবং ডায়েটিশিয়ানদের একটা প্রশ্ন হরহামেশাই শুনতে হয়, আমি কি পিৎজা খেয়েও ওজন কমাতে পারি? আপনি যদি তাদের মধ্যে হয়ে থাকেন যারা এই মিলিয়ন ডলারের প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন তাহলে একবোরেই ঘাবড়ে যাবেন না।
পুষ্টিবিদরা বিশ্বাস করেন যে পিৎজা এমন একটি খাবার নয় যা আপনার প্রতিদিন খেতে ভালো লাগবে। এটি আপনার সামগ্রিক খাবারের একটা অংশ হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, পিৎজাকে একটি সুষম খাবারের অংশ করার জন্য, আপনাকে এতে আরো বেশি শাকসবজি, চর্বিহীন প্রোটিন এবং অল্প পরিমাণে স্বাস্থ্যকর চর্বি যুক্ত করতে হবে। এই পদ্ধতি শেষ পর্যন্ত ওজন কমানোর লক্ষ্যে পৌঁছাতে আপনাকে সহায়তা করবে। অতএব, মাসে একবার বা দুইবার পিৎজা খাওয়া আপনার লক্ষ্যকে ব্যাহত করবে না।

ইউনাইটেড স্টেটস ডিপার্টমেন্ট অফ এগ্রিকালচারের (ইউএসডিএ) মতে, পনির পিৎজার প্রতিটি টুকরো প্রায় ২৮৫ ক্যালরি বহন করে। সুতরাং, যদি আপনি ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন এবং আপনার লক্ষ্য হল প্রতিদিন প্রায় ১,৫০০ ক্যালরি খাওয়া তাহলে দুটি টুকরার বেশি খাওয়া অবশ্যই ভালো নয়। অতএব, স্বাস্থ্যকর ডায়েটের জন্য একটি স্লাইস যোগ করার পরামর্শ দেওয়াই যায়।

এমন পিৎজা আছে যা আপনি খেতে পারেন এবং তারপরও ওজন কমাতে পারেন। আপনি এটি রাতের খাবার বা দুপুরের খাবার হিসাবে খেতে পারেন। অবশ্যই, আপনাকে আপনার ব্যায়ামের রুটিন এবং অন্যান্য ডায়েট প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে, যা আপনি ওজন কমানোর জন্য রেখেছেন। এই পিৎজায় প্রচুর পরিমাণে সবজি রয়েছে এবং তাই এটি ফাইবার, খনিজ এবং ভিটামিনের সমৃদ্ধ উৎস। জেনে নিন কীভাবে পিৎজা তৈরি করবেন।

প্রয়োজনীয় উপকরণ: ময়দা ১/২ কাপ, প্রয়োজন মতো গরম পানি, ৩ চা চামচ ভর্তি পিৎজা সস (বাড়িতে তৈরি), ১/২ কাপ মিক্সড ক্যাপসিকাম, টমেটো, পেঁয়াজ, ১/৪ কাপ মাশরুম, ২ টেবিল চামচ ভর্তি সুইট কর্ণ, ১ চা চামচ ভর্তি চিলি ফ্লেক্স, ১ টেবিল চামচ ভর্তি ওরেগানো, ১/৪ কাপ পনির, ৪ টেবিল চামচ ভর্তি ফেটা চিজ।

প্রস্তুত প্রণালী: প্রথমে পর্যাপ্ত গরম পানি ব্যবহার করে ময়দা নরম করে গুঁড়া করে নিন এবং তারপর এটি দিয়ে একটি পিৎজা বেস তৈরি করুন।

একটি প্যান প্রি-হিট করে নিয়ে পিৎজা বেসটি কম আঁচে রাখুন এবং উভয় দিক থেকে ৫ মিনিটের ধরে রান্না করুন। বাড়িতে তৈরি পিৎজা সসে ক্যাপসিকাম, পেঁয়াজ, টমেটো, মাশরুম এবং সুইট কর্ন মিশিয়ে নিন। এরপর ওরেগানো, চিলি ফ্লেক্স এবং ফেটা চিজ যোগ করুন। প্যানের ঢাকনা বন্ধ রেখে ৫-৭ মিনিট রান্না করুন। হ্যাঁ, এই পিৎজা আপনি মাসে দুইবারের বেশি খেতে পারেন এবং তারপর ওজনও কমাতে পারেন।