• রোববার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৪ ১৪২৮

  • || ১০ সফর ১৪৪৩

সর্বশেষ:
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে প্রত্যেক নাগরিকের ভাগ্যের উন্নয়ন হয়েছে-সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে রক্তদান কর্মসূচি শেখ হাসিনার নেতৃত্ব ও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে গুরুত্ব দিয়ে আসছে সৌদি আরব প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন হাকিমপুরের মৃৎশিল্পীরা দেশের ৬৮টি কারাগারের ৮৫ হাজার কারাবন্দিকে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু

নীলফামারীতে ফুল দিয়ে বরণ করা হলো শিক্ষার্থীদের

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১  

করোনা মহামারির কারণে গেল বছরের মার্চে বন্ধ হয়ে যায় দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এর পর দফায় দফায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার চেষ্টা করা হলেও করোনার ঊর্ধ্বগতির জন্য তা আর সম্ভব হয়নি। অবশেষে দীর্ঘ প্রায় দেড় বছর পর সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলেছে আজ। দীর্ঘ বন্ধের পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে দেখা গেছে বাড়তি উচ্ছ্বাস। শিক্ষকদের মধ্যেও ছিল কর্মচাঞ্চল্য।

রোবাবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় নীলফামারী সদর উপজেলার পঞ্চপুকুর ইউনিয়নের পুরানা কাছারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, শ্রেণিকক্ষে প্রবেশের আগে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে লাইনে দাঁড়ানোর পর বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শিক্ষার্থীদের শরীরের তাপমাত্রা মেপে, হাত ধুয়ে এবং ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়।
পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র তুহিন ইসলাম বলেন, ক্লাসে আসতে পেরে অন্যরকম ভালো লাগছে। সবার সাথে দেখা হলো। এখন থেকে প্রতিদিন ক্লাস করবো। আমরা হাত ধুয়ে, মাস্ক পরে ক্লাসে এসেছি।

পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী জেসমিন আক্তার বলেন, দেড় বছর পর আজ আমরা স্কুলে এসেছি। বন্ধুবান্ধব ও স্যার ম্যাডামদের সাথে দেখা হলো, ক্লাস করছি। আমার অনেক ভালো লাগছে।

শ্রেণি কক্ষগুলো ঘুরে দেখা গেছে, জেড প্লান করে প্রতি বেঞ্চে একজন করে শিক্ষার্থী বসানো হয়েছে। শিক্ষার্থীদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ক্লাস শুরুর আগে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে শিক্ষকরা করোনা সচেতনতামূলক বক্তব্য দিচ্ছেন।

পুরানা কাছারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আমজাদ হোসেন বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। আজ শিক্ষার্থীদের পদচারণায় বিদ্যালয়টি মুখরিত। প্রায় শতভাগ শিক্ষার্থী উপস্থিত হয়েছে।

তিনি আরও জানান, শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণিকক্ষে বসানো হয়েছে। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েই আমরা সশরীরে ক্লাস শুরু করছি।

নীলফামারী সদর উপজেলার সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আতাউল গনি ওসমানী জানান, নীলফামারী সদর উপজেলার বাবরীঝাড় ক্লাস্টারের ২৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি, প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষকদের সাথে একাধিকবার আলোচনা করা হয়েছে। স্বাস্থবিধি মেনে ক্লাস নেওয়া এবং কোন শিক্ষার্থী যেন ঝরে না পড়ে সে দিকে নজর রাখা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, নীলফামারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার নবেজ উদ্দিন সরকার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার এনামুল হক সরকার বিভিন্ন স্কুল পরিদর্শন করেন।