• শুক্রবার   ২২ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৮

  • || ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু এক্সিবিশন সেন্টার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী একই দিনে উদ্‌যাপিত হলো তিন ধর্মের উৎসব চীন থেকে এলো আরো ৫৫ লাখ সি‌নোফা‌র্মের টিকা শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশে সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী যেই হোক ব্যবস্থা নেয়া হবে’

কালের বিবর্তনে সৈয়দপুরে থেকে বিলুপ্তির পথে হাডুডু খেলা

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

সৈয়দপুরে হারিয়ে যাচ্ছে হাডুডু খেলা। আধুনিক খেলার ভিড়ে এখন এই খেলা তেমন দেখা যায় না। এক সময় পাড়ায়-মহল্লায় ঢাকঢোল বাজিয়ে হাডুডু খেলা হতো। তখন ছাগল বা মোরগ বাজি ধরে মনের আনন্দে এক পাড়ার সঙ্গে অন্য পাড়ার প্রতিযোগিতা হতো। নীলফামারীর সৈয়দপুরসহ পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন উপজেলায় বিনোদনের খোরাক জুগিয়েছে এই হাডুডু খেলা। কিন্তু কালের বিবর্তনে মানুষ আজ ভুলতে বসেছে এ খেলা। সেই হাডুডু খেলা আজ গ্রামগঞ্জ থেকে প্রায় বিলুপ্তর পথে।

দেখা গেছে, এ খেলাটি দিন দিন বিলুপ্ত হওয়ার কারণে এর খেলোয়াড় সংখ্যাও কমে যাচ্ছে। তৈরি হচ্ছে না কোনো নতুন খেলোয়াড়। আর পুরোনো অভিজ্ঞ খেলোয়াড়রা অর্থাভাবে প্রসার ঘটাতে পারছেন না এ খেলায়। হাডুডু বাংলাদেশের অন্যতম অতি পুরোনো প্রিয় একটি খেলা। এটি শুধু বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী খেলাই নয়, এটি আমাদের দেশের জাতীয় খেলাও বটে। বর্তমানে গ্রামীণ খেলাগুলো বিলুপ্ত হতে হতে এর অস্তিত্বের শেষ সীমায় দাঁড়িয়েছে। আমাদের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি ধরে রাখতে হাডুডু খেলাকে ধরে রাখতে হবে। গ্রামীণ খেলা আমাদের আদি সংস্কৃতির একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এক সময় এ দেশের ছেলেমেয়েরা গ্রামীণ খেলাকে প্রধান খেলা হিসেবে জানত। কিন্তু তার জায়গা দখল করেছে লুডু, কেরাম, ক্রিকেট, টিভি, কম্পিউটার।

উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের দলুয়ার শতবর্ষী নজির হোসেন জানান, নারী পুরুষ ও শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ বয়সের লোক সম্মিলিতভাবে এই খেলা উপভোগ করতেন। কিন্তু এখন গ্রামের খোলা মাঠে এসব খেলা শুধুই স্মৃতি। দিন দিন এই খেলাটি হারিয়ে যাচ্ছে। উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার অন্যতম সদস্য সাবাহাত আলী সাব্বু জানান, করোনায় খেলাধুলায় কিছুটা ভাটা পড়েছে। তবে হাডুডু খেলার আয়োজন করার ইচ্ছে আমাদের রয়েছে।

উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক বলেন, আমাদের স্টেডিয়াম তৈরি আছে। কিন্তু করোনায় খেলাধুলা বন্ধ আছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে হাডুডুসহ গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহী খেলার আয়োজন করা হবে।