• রোববার   ২৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৯

  • || ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার প্রশংসা পর্তুগালের মরণোত্তর ‘দ্যাগ হ্যামারশোল্ড’ পেলেন দুই বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী দেশে ভেনামি চিংড়ি চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের শিল্পনগরী ও অর্থনৈতিক অঞ্চল হচ্ছে দিনাজপুর: হুইপ ইকবালুর রহিম আরও সময় নিয়ে বৈঠকের প্রস্তুতি নিতে চায় দুই ঢাকা-দিল্লি

৭ মার্চের ভাষণ শুনে যুদ্ধে গিয়েছিলেন তিন বন্ধু

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ মার্চ ২০২২  

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ শুনে দুই বন্ধুসহ যুদ্ধে গিয়েছিলেন আব্দুস সাত্তার। তবে যুদ্ধ শেষে দুই বন্ধু বাড়ি ফিরলেও ফেরেনি নববিবাহিত বন্ধু মজিবর।

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তারের বাড়ি নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার কালিগঞ্জ বঙ্গবন্ধু বাজারে। তিনি জলঢাকা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাংগঠনিক কমান্ডার।

এক সাক্ষাৎকারে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার জানান, বঙ্গবন্ধুর ডাকে বন্ধু হাসান আলী ও নববিবাহিত বন্ধু মজিবরসহ মুক্তিযুদ্ধে গিয়েছিলেন তিনি। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দার্জিলিং জেলার মুজিব ক্যাম্প থেকে ৪৩ দিন অস্ত্র প্রশিক্ষণ শেষে লালমনিরহাট এলাকায় যুদ্ধে অংশ নিয়েছিল তারা। কয়েকবার সম্মুখ যুদ্ধে এক সাথে অংশ নিয়েছেন তিন বন্ধু। তবে লালমনিরহাট বিমান ঘাটি মুক্ত করে পায়ে হেঁটে নীলফামারী চিলাহাটিতে আসেন তারা। ৭১'র এর নভেম্বরের ১ম সপ্তাহে সেখানে সম্মুখযুদ্ধে ইশারা বুজতে না পেরে পাক হানাদার বাহিনীর হাতে ধরা পড়েছিলেন বন্ধু মজিবর।

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে কান্নাজড়িত গলায় তিনি বলেন, আমাদের তিন বন্ধুর বয়স তখন ১৭/১৮ বছর। মজিবর বিয়ে করে বন্ধুত্বের টানে বউকে শ্বশুর বাড়িতে রেখে আমাদের সাথে গিয়েছিল। এমনকি একবেলা ভাতও খায়নি বউয়ের সাথে।

বর্তমান চিলাহাটির বাজারের পশ্চিমে শহীদ মজিবর রহমানের কবর রয়েছে। বন্ধু বীর মুক্তিযোদ্ধা হাসান আলি এখনো বেঁচে আছেন বলে জানান তিনি।