• মঙ্গলবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

  • || ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

নীলফামারীর লোকালয়ে আসা সেই হনুমান উদ্ধার করেছে বন বিভাগ

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৯ জুলাই ২০২২  

নীলফামারীর লোকালয়ে আসা সেই হনুমান উদ্ধার করেছে বন বিভাগ           
প্রায় দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে নীলফামারী জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘোরাফেরা করা হনুমানটি উদ্ধার করেছে বন বিভাগ। শুক্রবার (২৯ জুলাই) সকালে নীলফামারী বড় বাজারের একটি মোবাইল টাওয়ার থেকে এটিকে উদ্ধার করেন রংপুর ও স্থানীয় বন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

হনুমানটিকে উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন নীলফামারী জেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা মোনায়েম খান। 

তিনি বলেন, আজ সকালে রংপুর বন বিভাগ ও নীলফামারী বন বিভাগের কর্মকর্তারা যৌথ অভিযান চালিয়ে হনুমানটিকে উদ্ধার করি। হনুমানটি টাঙ্গাইলের মধুপুর থেকে এই এলাকায় এসেছে। আমরা কিছুদিন ধরে হনুমানটির গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে আজকে উদ্ধার করেছি।  

রংপুর বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা স্মৃতি সিংহ রায় বলেন, নীলফামারী বন বিভাগের সহায়তায় রংপুর থেকে একটি টিম গিয়ে চেতনানাশক ওষুধ দিয়ে নীলফামারী শহরের বড়বাজার এলাকার একটি মোবাইল টাওয়ার থেকে হনুমানটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। হনুমানটিকে দেখে মনে হচ্ছে কিছুটা অসুস্থ। রংপুর চিড়িয়াখানায় এটিকে রেখে সুস্থ করে কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী রংপুর চিড়িয়াখানায় অথবা টাঙ্গাইলের মধুপুর বনে অবমুক্ত করা হবে।

নীলফামারী সরকারি কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নুরুল করিম বলেন, সেদিন কলেজের দেয়ালের ওপর বসে থাকতে দেখি হনুমানটিকে। ধন্যবাদ বন বিভাগকে এটিকে উদ্ধার করার জন্য। এছাড়াও আমি ধন্যবাদ দিতে চাই নীলফামারীবাসীকে । তারা উৎসুক ছিল হনুমানটিকে দেখার পর, কিন্তু তার কোনো ক্ষতি করেনি। এছাড়াও যে যেভাবে পারছে হনুমানটিকে খাবার দিয়েছে। 

প্রসঙ্গত, ১৫ থেকে ২০ দিন আগে সৈয়দপুর থেকে নীলফামারীতে আসে এই হনুমানটি। বেশ কিছু দিন থেকে তাকে দেখা যায় শহরের বড়বাজার, গাছবাড়ি, কৃষি ফার্ম, মিলনপল্লী, হাড়োয়া, পুরাতন রেলস্টেশন, নীলফামারী সরকারি কলেজ এবং নতুন বাজার এলাকায়।