• শুক্রবার ২১ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৭ ১৪৩১

  • || ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

নীলফামারীতে মিস্ত্রিকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ২

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০১৯  

নীলফামারী সদর উপজেলায় বাথরুমের ফিটিংস মিস্ত্রি জুয়েল রানাকে (২৪) পিটিয়ে আহতের দুইদিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শনিবার সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। জুয়েল সদর উপজেলার ইটাখোলা ইউনিয়নের শ্রীনাথ পূর্বপাড়া এলাকার মৃত সুলতান আলীর ছেলে।

এদিকে, তার মৃত্যুর খবর পেয়ে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে নীলফামারী-জলঢাকা সড়কের হাতীবান্ধা এলাকায় এক ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখেন এলাকাবাসী। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দিয়ে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুপুরে রামনগর ইউনিয়নের বিষমুড়ি এলাকায় হবিবর রহমান হবির হোটেলে মোটরলাইনের কাজ করার সময় একই এলাকার মহির উদ্দির তার বাড়িতে বাথরুমের কাজ করার জন্য জুয়েলকে চাপ দেয়। এ সময় তিনি অপারগতা প্রকাশ করলে মহির তার দুই ছেলে ইদ্রিস আলী ও নুরুজ্জামানসহ চারজন মিলে বেধড়ক মারধর শুরু করেন। এতে গুরুতর আহত হন জুয়েল ও ছোট ভাই মানিক। স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে জুয়েলের মৃত্যু হয়।

নীলফামারী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোমিনুল ইসলাম মোমিন বলেন, এটি একটি হত্যাকাণ্ড। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত মহির উদ্দিন ও তার ছেলে ইদ্রিসকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।