• শুক্রবার   ২২ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৮

  • || ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু এক্সিবিশন সেন্টার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী একই দিনে উদ্‌যাপিত হলো তিন ধর্মের উৎসব চীন থেকে এলো আরো ৫৫ লাখ সি‌নোফা‌র্মের টিকা শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশে সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী যেই হোক ব্যবস্থা নেয়া হবে’

বাংলাদেশের রাজনীতিতে এক ব্যর্থ ব্যক্তির নাম তারেক রহমান: কারণ কি?

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০২১  

বাংলাদেশের রাজনীতিতে এক ব্যর্থ ব্যক্তির নাম তারেক রহমান। লন্ডনে পলাতক বিএনপির দণ্ডপ্রাপ্ত এ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে নিয়ে অনেক আগেই রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মন্তব্য করেছিলেন।

২০০৩ সালের দিকে তারা বলেছিলেন, তারেকের কুকর্মেই বিএনপির সর্বনাশ হবে। বর্তমান সময়ে এসে সেই ভবিষ্যদ্বাণীই সত্য প্রমাণিত হয়েছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বিভিন্ন ত্রুটির কারণে তারেক রহমান কখনো ভালো নেতা হতে পারেননি। তারেক রহমানের এসব দোষ নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রায়ই আলোচনা হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলো:

শিক্ষার অভাব: বর্তমান সময়ে রাজনীতি করার জন্য শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষা মানে শুধু প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নয়। বিভিন্ন বইপত্র ও রাজনৈতিক নিবন্ধ পড়া ছাড়াও দেশ-বিদেশের রাজনীতি সম্পর্কে নানা জ্ঞান রাখতে হয়। তারেক জিয়ার শিক্ষার অবস্থা যেমন নড়বড়ে, তেমনি অন্য পড়াশুনার প্রতিও তার কোনো আগ্রহ নেই।

নিজের অজ্ঞতা স্বীকার না করা: তারেক রহমানের মধ্যে সবজান্তা ভাব সব সময়ই বিদ্যমান। কোনো বিষয় না জানা থাকলেও কেউ যখন কোনো তথ্য দেয় তখন ‘হ্যাঁ হ্যাঁ জানি’ বলাটা তারেক রহমানের বড় বদভ্যাস। এ কারণে বর্তমানে তারেক রহমানকে কেউ কোনো তথ্য স্বাচ্ছন্দ্য সহকারে দেয় না। তার এই সবজান্তা স্বভাব তার অধঃপতনের অন্যতম কারণ।

অর্থলোভ: তারেক জিয়া প্রচণ্ড অর্থলোভী। টাকার জন্য তিনি সবকিছু করতে পারেন। অর্থলোভ তার রাজনৈতিক বিকাশের অন্যতম বাধা।

অসৎ সঙ্গ: তারেক রহমানের চারপাশে যারা থাকেন, তারা প্রায় সবাই অযোগ্য ও অসৎ। এরা তাকে ভুল তথ্য দেন, তোষামোদ করেন। এদের দ্বারা পরিবেষ্টিত তারেক কখনো সুস্থ রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না।

সিনিয়রদের প্রতি অশ্রদ্ধা: বিনয়ের অভাব তারেক রহমানের এক বড় বৈশিষ্ট্য। দলের অনেক সিনিয়র নেতাই তারেক জিয়ার কাছে অপমানিত হয়েছেন। এদের কেউ কেউ তারেককে এ বলে সতর্ক করেছিলেন যে, সিনিয়রদের অপমান করে ভালো নেতা হওয়া যায় না।

মিথ্যাবাদী: বিএনপিতে তারেকের সঙ্গে কাজ করেছেন এমন অনেকে বলেন, তারেক অসম্ভব মিথ্যাবাদী। রাজনৈতিক আলোচনায় তিনি সত্যি বলেন খুবই কম। এ রকম মিথ্যাবাদী ব্যক্তি কখনো রাজনীতিতে সফল হতে পারেন না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক প্রবীণ এক রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, এসব কারণেই তারেক রহমান রাজনীতিতে ব্যর্থ এবং তার ভবিষ্যৎ অন্ধকারাচ্ছন্ন। মজার বিষয় হচ্ছে, এ বিষয়গুলো হয়তো তারেক রহমান নিজেও জানেন। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য, পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে তারেক কখনোই কোনো ইস্যুতে নিজেকে বদলাননি। তার একগুঁয়ে আচরণই বিএনপিকে পদে পদে ডুবিয়েছে।