• বুধবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ৬ ১৪২৮

  • || ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সর্বশেষ:
সেবা নিতে এসে কোনো মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হন- ডিসি সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী দিনাজপুরে বইছে শৈত্যপ্রবাহ ‘শীতার্ত মানুষের কষ্ট লাঘবে পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার’ ডিমলায় পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, যুবক আটক বিরলে ট্রাক্টরের ধাক্কায় পল্লি চিকিৎসক নিহত

নাসিক নির্বাচন নিয়ে বিএনপির কূটকৌশল ফাঁস

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৩ জানুয়ারি ২০২২  

যে কোনো মূল্যেই নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচনের ফলাফল ঘরে নিতে চায় বিএনপি। আর এ কারণেই দলের পক্ষ থেকে নানা কূটকৌশল গ্রহণ করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, নাসিক নির্বাচনে অন্যতম কৌশল হিসেবে খোলস বদলকে বেছে নিয়েছে বিএনপি। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তৈমূর আলম খন্দকারকে নাসিক নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া এবং দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। 

বিএনপি ভেবেছিল, দলের এ স্ট্যান্ডবাজি কেউ ধরতে পারবে না। সবাই ভাববে, তৈমূর আর বিএনপির কেউ নন। যদি তাই হয়, তাহলে তৈমূরের প্রচারণায় কেন স্থানীয় বিএনপি নেতারা অংশ নিচ্ছেন? এর মধ্য দিয়েই বিএনপির কূটকৌশল জনগণের প্রকাশ্যে এসেছে। 

স্থানীয় নেতাকর্মীদের তথ্যমতে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে এবার তৃতীয়বারের মতো নির্বাচন হচ্ছে। এর আগের দুইবার মেয়র পদে বিজয়ী হন সেলিনা হায়াৎ আইভী। এবারো তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীকে লড়াইয়ে নেমেছেন। ভীষণ জনপ্রিয় এ প্রার্থীর বিপরীতে প্রথমে বিএনপি প্রার্থী দেবে না বলে ঘোষণা দিলেও তৈমূর আলমকে প্রার্থী করা হয়।

তবে কয়েক দিন না যেতেই দেখা যায়, বিএনপির প্রার্থীর প্রতি মানুষের আগ্রহ নেই। জনসংযোগেও নেই মানুষের উপস্থিতি। এ অবস্থা দেখে নিজেদের ‘প্ল্যান বি’-তে হাত দেয় বিএনপি। তৈমূরকে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।  পরবর্তীতে জয়ী হলে তার অব্যাহতি আদেশ ফিরিয়ে নেয়া হবে বলে কূটকৌশল এঁটেছে বিএনপি। 

তবে জনগণ বিএনপির এই চতুরতা ধরে ফেলায় ‘ভাড়াটে লোক’ নিয়ে জনসংযোগ করছে তৈমূর। সঙ্গে রয়েছে স্থানীয় কতিপয় বিএনপি নেতা। তাদের ভাষ্যে, মরলেও বিএনপি, বাঁচলেও বিএনপি তারা। আর তৈমূর তাদেরই প্রার্থী। সাময়িকভাবে তাকে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে, কিন্তু বহিষ্কার তো করা হয়নি! তাই তারেক রহমানের কথা মতো জনসংযোগে এসেছেন।

এমন নির্দেশনা তারেক দিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির স্থানীয় এক নেতা বলেন, মির্জা ফখরুলকে ভিডিও কলের মাধ্যমে তারেক রহমান জানিয়েছেন যে, তৈমূরকে স্বতন্ত্র করা হয়েছে নিজেদের দলীয় স্বার্থে। তাই তাকে যেন পর্যাপ্ত সহায়তা দেওয়া হয়। তাই আমরাও সেই প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে নেমেছি।

এ ব্যাপারে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বলেন, রাজনীতিতে কৌশল অবলম্বন করা যেতেই পারে। তারেক রহমান হয়তো সে রকমই কিছু করছেন।

এদিকে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, শুরু থেকেই নাসিক নির্বাচন নিয়ে নিজেদের লাভ খুঁজে বেড়াচ্ছে বিএনপি। তাই তৈমূরের প্রার্থিতা নিয়ে এতো নাটক। এ পরিস্থিতিতে নাশকতার ছক বিএনপি আঁকতেই পারে। 

তারা আরো বলেন, সরকারের পাশাপাশি তাই আমাদের চোখ-কান খোলা রাখতে হবে। যাতে কোনোভাবেই স্বাধীনতাবিরোধী এ শক্তি দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে না পারে। কারণ, পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতার মসনদে যাওয়ার স্বপ্ন বিএনপি তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই দেখে আসছে।