• রোববার   ২৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৯

  • || ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার প্রশংসা পর্তুগালের মরণোত্তর ‘দ্যাগ হ্যামারশোল্ড’ পেলেন দুই বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী দেশে ভেনামি চিংড়ি চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের শিল্পনগরী ও অর্থনৈতিক অঞ্চল হচ্ছে দিনাজপুর: হুইপ ইকবালুর রহিম আরও সময় নিয়ে বৈঠকের প্রস্তুতি নিতে চায় দুই ঢাকা-দিল্লি

গণঅধিকার পরিষদ থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিচ্ছেন রেজা কিবরিয়া

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২২ এপ্রিল ২০২২  

কাঙ্ক্ষিত জনসমর্থন না থাকায় গণঅধিকার পরিষদ থেকে নিজেকে ধীরে ধীরে গুটিয়ে নিচ্ছেন দলটির সভাপতি রেজা কিবরিয়া।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথম আলোচনায় আসেন রেজা কিবরিয়া। ঐ সময় তিনি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন এবং ঐ নির্বাচনে পরাজিত হন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ভরাডুবির পর নতুন রাজনৈতিক দল গঠন করা হয় গণঅধিকার পরিষদ। সেই নতুন রাজনৈতিক দলের সভাপতি হন রেজা কিবরিয়া।
 
কিছুদিন খুব টইটুম্বুর আলোচনার মধ্যে ছিলেন রেজা কিবরিয়া। তাকে ড. কামাল হোসেনের বিকল্প মনে করা হচ্ছিল। কিন্তু হঠাৎ রেজা কিবরিয়া রাজনীতি থেকে চুপসে যাচ্ছেন।

জানা গেছে, রেজা কিবরিয়া সভাপতি হওয়ার পর বেশ তর্জন-গর্জন শুরু করেন। বিদেশিদের আকর্ষণ করতে ইংরেজিতে বক্তৃতাও দেন। কিন্তু এ উত্তেজনা বেশিদিন স্থায়ী হয়নি। কারণ, জনসমর্থন না থাকায় এবং নুরদের রাজনৈতিক জীবন আর রেজা কিবরিয়ার জীবনের মধ্যে পার্থক্য থাকায় তাদের মধ্যে মনস্তাত্ত্বিক দূরত্ব তৈরি হয়েছে। যার ফলে এখন গণঅধিকার পরিষদের কার্যক্রমে রেজা কিবরিয়ার অনীহা বাড়ছে বলে একাধিক সূত্র জানিয়েছে।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেন, পিতৃ পরিচয়ে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে পাননি রেজা কিবরিয়া। সেই সময় থেকে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েনের শুরু তার। এরপর জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, অবশেষে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর যখন নতুন রাজনৈতিক দলের ঘোষণা দিলো সেই দলে রেজা কিবরিয়া সভাপতি হন। কিন্তু নুর ও তার সহযোগীরা রেজা কিবরিয়ার তাল মেলাতে না পারছেন না। এজন্য তিনি গণঅধিকার পরিষদের কার্যক্রমে নিজেকে আস্তে আস্তে গুটিয়ে নিচ্ছেন। ব্যর্থতার গ্লানি নিয়ে নতুন রাজনৈতিক দল থেকে তার গুটিয়ে যাওয়া স্বাভাবিক বিষয়।