• মঙ্গলবার   ০৪ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৮ ১৪২৯

  • || ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
মুজিববর্ষে সরকারি ঘর পেয়েছে প্রায় ২ লাখ পরিবার: প্রধানমন্ত্রী আগামী প্রজন্মের জন্য পরিকল্পিত নগরায়ণের বিকল্প নেই: রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশ অঞ্চলের ৫০ লাখ ভিডিও সরিয়েছে টিকটক: টেলিযোগাযোগমন্ত্রী করতোয়ায় দেশের বৃহত্তম ওয়াই ব্রিজ হবে: রেলমন্ত্রী সুজন বিএনপি সুযোগ পেলে আবার নির্যাতন চালাবে: তোফায়েল আহমেদ

বিএনপির সমাবেশে মারামারি, থামাতে গিয়ে বিপাকে নিপুণ রায়

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৩ আগস্ট ২০২২  

বিএনপির সমাবেশে মারামারি, থামাতে গিয়ে বিপাকে নিপুণ রায়           
রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির সমাবেশে নেতাকর্মীদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। মারামারি থামাতে গেলে বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায় চৌধুরীর ওপর চড়াও হন নেতাকর্মীরা। গত বৃহস্পতিবার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে সমাবেশ চলাকালে সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের নেতাকর্মীদের পাশে নির্ধারিত স্থানে বিশাল একটি মিছিল নিয়ে অবস্থান নেন ঢাকা মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক গোলাম মাওলা শাহীন ও সদস্য সচিব এনামুল হক এনাম।

কিছুক্ষণ পর ১৫-২০ জন নেতাকর্মী নিয়ে সেখানে হাজির হন রবিউল ইসলাম নয়ন। কেরানীগঞ্জ দক্ষিণের নেতাকর্মীদের তুলে দিয়ে সেখানে বসতে চান তিনি। এক পর্যায়ে কেরানীগঞ্জের এক কর্মীর মোবাইল ভেঙে ফেলেন নয়ন।

এ সময় কেরানীগঞ্জ দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি নিপুণ রায় গণ্ডগোল থামাতে গেলে তার ওপর নয়নসহ অন্য নেতাকর্মীরা চড়াও হন। তারা কেরানীগঞ্জের নেতাকর্মীদের মারধর করেন। এক পর্যায়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের নেতাকর্মীরাও নয়নকে মারধর করেন। পরিস্থিতি খারাপ হয়ে উঠলে যুবদলের কেন্দ্রীয় এক নেতার হস্তক্ষেপে স্থান ত্যাগ করেন নয়ন।

মারামারিতে ঢাকা জেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব পাভেল মোল্লা, ঢাকা জেলা তাঁতী দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ হীরা হোসেন, যুবদল নেতা বাদল হোসেন ও বিএনপি নেতা আল-আমিন আহত হন।