বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

মুজিববর্ষে ফুটবল চমক আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল!

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত : ০৫:০৫ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শুক্রবার

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে চলছে উৎসব মুখোর প্রস্তুতি। প্রতিটা ফেডারেশন নিজেদের সেরাটা দিতে বদ্ধপরিকর। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনও নিয়ে আসছে ভিন্ন এক চমক। যা এর আগে বাংলাদেশের ফুটবল ইতিহাসে হয়নি। 

মুজিববর্ষে বাংলাদেশে আসতে পারে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল। এমন আশাই ব্যক্ত করলেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী।

বৃহস্পতিবার মুজিববর্ষে বাফুফের পরিকল্পনার কথা বলতে গিয়ে তিনি একথা জানান, তিনি বলেন, মুজিববর্ষ আমাদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ বছর। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে ক্রীড়াঙ্গনে একটা উৎসব মুখোর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন তার সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করছে মুজিববর্ষ পালন করতে। ছোট-বড় অনেক ইভেন্ট থাকছে আমাদের। মেয়েদের স্কুল টুর্নামেন্ট,  ববঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ তো থাকছেই। আমরা চেষ্টা করছি বিশ্ব মাতানো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুইটি টিমকে বাংলাদেশে প্রীতি ম্যাচ খেলতে আনার ব্যাপারে। তারা দুইটি ম্যাচ খেলবে দেশে। একটা নিজেদের মধ্যে অন্যটা বাংলাদেশ জাতীয় দলের বিপক্ষে। ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচ হবে দুইটিই।'

আলাপ কালে উঠে আসে আর এক সহ-সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ মহীর করা অভিযোগের ব্যাপার।

এ ব্যাপারে সালাম মুর্শেদী বলেন, তিনি একজন সহ-সভাপতি আমার কলিগ। তিনি এতদিন কেন এই অভিযোগ করেননি। এখন আমাদের কমিটির মেয়াদ শেষে এসে করলে এর সমাধান কি ভাবে হবে। আর আমরা এজিএম করতে পারিনি এইটা আমাদের ব্যর্থতা। এ ছাড়া সব কিছুই নিয়ম অনুযায়ী সবার মতামতের ভিত্তিতে করা হয়েছে। এইটা চাইলেই কেউ একা করতে পারবে না। আর সে সুযোগ ও নেই।

১৬ সেপ্টেম্বর বিকেলে অনিয়মের ব্যাখ্যা চেয়ে বাফুফের সভাপতির কাছে চিঠি দেন বাফুফের সহ-সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ মহি। বাফুফের সভাপতি কাজী সালাউদ্দীন বরাবর লেখা এই চিঠিতে গত তিন আর্থিক বছরের পুরো দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরেন তিনি। 

তিন বছরের ব্যক্তিগত পর্যবেক্ষণ থেকে মহির লিখিত অভিযোগে ২০১৬ সালে ৮ কোটি ৬১ লক্ষ, ২০১৭ সালে ৫ কোটি ৬৫ লক্ষ ও ২০১৮ সালে ২ কোটি ৭৬ লক্ষ টাকাসহ সর্বমোট ১৭ কোটি টাকার হেরফের হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

বাফুফের কম্পিটিশন কমিটির চেয়ারম্যান পদ থেকে এরইমধ্যে পদত্যাগ করেছেন মহিউদ্দীন আহমেদ।