• শনিবার   ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
তারা বুদ্ধিজীবী না, বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীজীবী- প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার প্রশংসায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ঘূর্ণিঝড় ‘মানদৌস’ নিয়ে আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে: নৌপ্রতিমন্ত্রী শামসুল আলমের প্রতি ভারতীয় হাই কমিশনারের শ্রদ্ধা

বেতন বাড়ছে নারী ফুটবলারদের

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২  

সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী দলের সদস্যরা বুধবার বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন তারা। গতকাল পরিশ্রান্ত অবস্থায় তেমন আলোচনা হয়নি। তবে আজ বিকেলে কথা হয়েছে অনেক বিষয়েই।

কাজী সালাউদ্দিনের সঙ্গে আলোচনা করে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন বলেছেন, ‘আমাদের তো চাওয়ার শেষ নেই। এরপরও মূলত প্র্যাকটিস ফ্যাসিলিটিজ ও সম্মানীর বিষয়ে কথা বলেছি। সভাপতি স্যার আমাদের বিষয়টি বাস্তবায়ন করবেন বলে জানিয়েছেন।’  

বাংলাদেশের নারী ফুটবলাররা মাসিক সম্মানী পান তিন ক্যাটাগরিতে। কেউ ৮ হাজার, কেউ ১০ আবার কেউ পান ১২ হাজার টাকা। সাবিনাদের প্রস্তাব ছিল সম্মানী বাড়ানোর। সেই সম্মানী বাড়িয়ে কতটা দাবি করেছেন সেটা অবশ্য বলেননি। সাবিনা বলেছেন, ‘আমরা একটা অঙ্ক বলেছি, ফেডারেশন সেটা দেখবে।’  

২০০৯ সাল থেকে নারী দলের সঙ্গে আছেন কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন। তার সম্মানী বাড়বে কি না এই প্রসঙ্গে ছোটন বলেন, ‘আমরা দিনের অধিকাংশ সময় ফুটবলেই দিই। বাসায় মেহমান হিসেবেই থাকি। মাস শেষে আমাদের সম্মানী বাড়লে, বাসায় সম্মানও বাড়বে। সাবিনাদের সঙ্গে আমাদের বিষয়টিও সভাপতি মহোদয় বিবেচনা করবেন বলে জানিয়েছেন।’

সম্মানী ছাড়া অনুশীলনের সুযোগ-সুবিধা নিয়ে কথা হয়েছে। আধুনিক ফুটবলে অনুশীলন এখন বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্ভর। অনুশীলন আরো ভালো করতে নারী দলে আরো একটি জিপিএস চেয়েছেন তারা, ‘আমরা অনুশীলনে সুবিধার জন্য আরেকটি জিপিএস চেয়েছি। আশা করি কিছুদিন পর পাব।’

আজকের সভার পর সাবিনাদের ছুটিও মিলেছে। ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২০ দিন ছুটি পাবেন সাবিনারা। ছুটি পাওয়ার আগ পর্যন্ত নারী ফুটবলাররা বাফুফে ভবনেই থাকবেন।