• বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ক্ষমতায়ন ছাড়া সমাজে নারীর অবস্থান উন্নত হবে না: প্রধানমন্ত্রী অপপ্রচারকারীদের কনস্যুলার সেবা দেবে না কানাডার বাংলাদেশ মিশন ‘দেশের ফুটবল দলকে বিশ্বকাপের উপযোগী করতে কাজ চলছে’ ট্রেনের ধাক্কায় ইউএনও অফিসের নৈশপ্রহরীর মৃত্যু ‘পলিথিন প্রস্তুতকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে’

ইনজুরিতে বার্সেলোনার কুন্দে ও আরাউহো

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২  

আন্তর্জাতিক বিরতিতে ইনজুরিতে পড়েছেন বার্সেলোনার দুই নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডার রোনাল্ড আরাউহো ও জুলেস কুন্দে। বিষয়টি নিশ্চিত করে ক্লাবের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আরাউহো ও কুন্দে দুজনই উরুর সমস্যায় ভুগছেন।

শুক্রবার ইরানের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের উরুগুয়ের হয়ে খেলতে নেমে পাঁচ মিনিটেই আরাউহো ইনজুরিতে পড়লে তাকে মাঠ থেকে উঠিয়ে নেয়া হয়। ম্যাচটিতে উরুগুয়ে ১-০ গোলে পরাজিত হয়েছে। অন্যদিকে নেশন্স লিগে বৃহস্পতিবার অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলের জয়ের ম্যাচটিতে ২৩ মিনিটে ইনজুরির কারনে মাঠত্যাগ করেন ডিফেন্ডার কুন্দে।

এই দুই সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার নিজ নিজ দেশের পরবর্তী ম্যাচে খেলতে পারবেন না। একইসাথে আন্তর্জাতিক বিরতি শেষে ক্লাব ফুটবল শুরু হলে বার্সেলোনার হয়ে হয়তবো প্রথম ম্যাচে মাঠে নামতে পারবেন না তারা।

আগামী ১৬ অক্টোবর মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকোতে মাঠে নামতে যাচ্ছে বার্সেলোনা-রিয়াল মাদ্রিদ। এই ম্যাচকে সামনে রেখে বার্সা কোচ জাভি হার্নান্দেজের সামনে রক্ষণভাগকে নিয়ে নতুন করে চিন্তা করতে হচ্ছে। এই মুহূর্তে হয়তো জাভিকে অভিজ্ঞ জেরার্ড পিকেকে বিবেচনায় আনতে হবে বলেই অনেকে মত দিয়েছেন।

সেভিয়া থেকে এবারের গ্রীষ্মে বার্সেলোনায় যোগ দেবার পর কুন্দে কাতালান জায়ান্টদের রক্ষভাগের মূল ভরসা হয়ে দাঁড়িয়েছেন। মাঝে মাঝে তাকে রাইট-ব্যাক পজিশনের ব্যবহার করা হয়। স্প্যানিশ গণমাধ্যমের দাবী আগামী তিন সপ্তাহ হয়তো তাকে মাঠের বাইরে থাকতে হতে পারে। যদিও ক্লাবের পক্ষ থেকে এ ব্যপারে নির্দিষ্ট করে কিছু বলা হয়নি।

সব মিলিয়ে আন্তর্জাতিক বিরতি বার্সেলোনার জন্য দু:শ্চিন্তাই বয়ে এনেছে। বৃহস্পতিবার পোল্যান্ডের বিপক্ষে নেশন্স লিগে নেদারল্যান্ডের ২-০ গোলের জয়ের ম্যাচটিতে হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়েছেন মেমফিস ডিপে। সতর্কতা হিসেবে  ঐ একই ম্যাচে বদলী বেঞ্চে ছিলেন ফ্রেংকি ডি জং।