• বৃহস্পতিবার   ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৯ ১৪২৯

  • || ০৯ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াতে মুসলিমদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান সংখ্যালঘু বলতে কোনো শব্দ নেই, আমরা সবাই বাঙালি: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আইএমএফের ঋণই প্রমাণ করে দেশের অর্থনীতির ভিত্তি মজবুত: অর্থমন্ত্রী করোনা মহামারির মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি ৩.৮% প্রসারিত হয়েছে শিক্ষা নিয়ে ব্যবসা করার মানসিকতা পরিহার করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

কাতারে মেসিময় রেকর্ডের এক রাত

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০২২  

কাতারে মেসিময় রেকর্ডের এক রাত                         
লিওনেল মেসি মাঠে নামবেন আর রেকর্ড হবে তা কি করে সম্ভব? কাতারেও তার ব্যক্তিক্রম হলো না। মেসি খেললেন, দলকে খেলালেন, জেতালেন এবং রেকর্ড গড়ে রাতটা নিজের করে রাখলেন। রেকর্ড উপচে পড়লো আর্জেন্টাইন জাদুকরের পায়ে। তাতে কাতারের রাতটা হয়ে রইলো মেসিময় রেকর্ডের এক রাত।

লুসাইল স্টেডিয়ামে নামার সঙ্গে সঙ্গেই রেকর্ডের পাতায় জায়গা করে নেন মেসি। বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে সবচেয়ে বেশি ২১ ম্যাচ খেলার রেকর্ডটা এতদিন দখল করে রেখেছিলেন প্রয়াত কিংবদন্তি দিয়েগো ম্যারডোনা। সেখানে ভাগ বসালেন মেসি। গ্রুপের শেষ ম্যাচে পোল্যান্ডের বিপক্ষে নামলেই রেকর্ডটি হয়ে যাবে তার একার।

বিশ্বকাপে গোল করার দিক দিয়েও ম্যারাডোনার পাশে বসলেন ক্ষুদে জাদুকর। বিশ্বকাপে ২১ ম্যাচ খেলে ম্যারাডোনার গোল ছিল ৮টি। সৌদি আরব ম্যাচের পর মেক্সিকোর বিপক্ষেও জালের দেখা পেয়ে মেসিরও হয়ে গেল ৮ গোল। ১০ গোল নিয়ে আর্জেন্টাইনদের মধ্যে সবার ওপরে আছেন কেবল গাব্রিয়েল বাতিস্তুতা।

বিশ্বকাপে নিজের সবশেষ চার ম্যাচেই গোলে সম্পৃক্ত থাকল মেসির নাম। গোল ও অ্যাসিস্ট, দুটোই সমান তিনটি করে। তাছাড়াও বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথম ও এখন পর্যন্ত একমাত্র ফুটবলার হিসেবে ৫টি আসরে অন্তত একটি করে অ্যাসিস্ট করার রেকর্ড এখন মেসির দখলে। তার সামনে নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ।

মেক্সিকোর বিপক্ষে অসাধারণ পারফরম্যান্সের পর ম্যাচসেরার পুরস্কারটা মেসির ভাগেই যাবে, সেটা অবধারিতই ছিল। এ নিয়ে বিশ্বকাপে সপ্তমবার ম্যাচসেরা হলেন মেসি। এটা আবার বিশ্বমঞ্চে অফিসিয়ালি কোনো খেলোয়াড়ের সবচেয়ে বেশি ম্যাচ সেরার পুরস্কার জয়ে যৌথভাবে শীর্ষে। তার সঙ্গে আছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

আর্জেন্টিনা বনাম মেক্সিকো ম্যাচ দেখতে লুসাইল স্টেডিয়ামে উপস্থিত ছিলেন ৮৮ হাজার ৯৬৬ জন দর্শক। গত প্রায় তিন দশকে বিশ্বকাপের কোনো ম্যাচে যা সর্বোচ্চ। সবশেষ ১৯৯৪ সালে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বকাপ আসরের আসরের ফাইনাল এরচেয়ে বেশি সর্বোচ্চ ৯৪ হাজার দর্শক মাঠে বসে খেলা দেখেছিল। সেটাই এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ। 

উল্লেখ্য, বাঁচা-মরার লড়াইয়ে মেসির এক গোল ও এনজো ফার্নান্দেজের গোলে মেক্সিকোর বিপক্ষে ২-০ গোলে জিতেছে আর্জেন্টিনা। অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার পাসে ৬৩ মিনিটে দলের হয়ে প্রথম গোলটা করেন মেসি। ম্যাচের শেষদিকে ৮৬ মিনিটে মেসির পাসে আন্তর্জাতিক ফুটবলে প্রথমবার গোলের খাতায় নাম লেখান এনজো।