• সোমবার ২০ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪৩১

  • || ১১ জ্বিলকদ ১৪৪৫

টি-২০ বিশ্বকাপের সেরা একাদশে বাংলাদেশের স্বর্ণা

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩১ জানুয়ারি ২০২৩  

প্রথমবারের মতো বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি নারীদের অনূর্ধ্ব -১৯ টি-২০ বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল। প্রথম আসরেই ইংল্যান্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত। এরপর সোমবার (৩০ জানুয়ারি) এ টুর্নামেন্টের সেরা দল ঘোষণা করেছে আইসিসি। যেখানে জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশের স্বর্ণা আক্তার।

রোববারের ফাইনালে ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৭ উইকেটের সহজ জয় পায় ভারত। আসরজুড়ে দারুণ নৈপুণ্য দেখালেও সেমিফাইনাল ও ফাইনালে ব্যর্থ হয়েছে ইংলিশ ব্যাটাররা। তারপরও চ্যাম্পিয়ন ভারত ও রানার্সআপ ইংল্যান্ড থেকে সমান তিনজন করে খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন সেরা একাদশে।

সেমিফাইনালে খেলা দুই দল অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের  পাশাপাশি সুপার সিক্সে খেলা বাংলাদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলংকা দল থেকে একজন করে জায়গা পেয়েছেন সেরা একাদশে। আর দ্বাদশ খেলোয়াড় হিসেবে জায়গা পেয়েছেন পাকিস্তানের একজন।

এই আসরের গ্রুপ পর্বে দারুণ পারফর্ম করে অপরাজিত থেকেই সুপার সিক্স পর্বে পা রাখে বাংলাদেশ। সেখানে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হারলেও জয় পায় আরব আমিরাতের বিপক্ষে। রান ব্যবধানে বাদ পড়ে যায় বাংলাদেশ।

বাদ পড়লেও দারুণ প্রশংসা পায় স্বর্ণার ব্যাটিং। আসরে হিটিং সামর্থ্যে দিয়ে নিজের জাত চিনিয়েছেন এই ডানহাতি। টুর্নামেন্টের পাঁচ ম্যাচে ১৫৭.৭২ স্ট্রাইকরেটে ১৫৩ রান করেছেন স্বর্ণা। এই আসরে ১৫০ এর ওপর স্ট্রাইক রেটে স্বর্ণা বাদে শুধু ভারতের অধিনায়ক শেফালি ভার্মাই করতে পেরেছেন ১৫০ বা তার অধিক রান।

আসরে দারুণ ধারাবাহিক ছিলেন স্বর্ণা। প্রতিটি ম্যাচেই কমপক্ষে ২০ রান এসেছে তার ব্যাট থেকে। শ্রীলংকার বিপক্ষে জয় পাওয়া ম্যাচে মাত্র ২৮ বলে হাঁকিয়েছিলেন অর্ধশতক। আসরে মোট ৬টি ছক্কা মারা স্বর্ণার চেয়ে বেশি ছক্কা মারতে পেরেছেন শুধু শেফালিই (৭টি)।

সেমিফাইনালের আগে বিদায় নিলেও স্বর্ণা অবশ্য থেকে গেছেন দক্ষিণ আফ্রিকাতেই। আগামী মাসে শুরু হতে যাওয়া নারীদের টি-২০ বিশ্বকাপের দলে আছেন তিনি।

সেরা একাদশ: শ্বেতা শেরাওয়াত (ভারত), শেফালি ভার্মা (ভারত), স্বর্ণা আক্তার (বাংলাদেশ), জর্জিয়া পলিমার (নিউজিল্যান্ড), গ্রেস স্ক্রিভেন্স (অধিনায়ক/ইংল্যান্ড), দেউমি ভিহাঙ্গা (শ্রীলংকা), কারাবো মেসো (উইকেটকিপার/ দক্ষিণ আফ্রিকা), হান্না বেকার (ইংল্যান্ড), পর্শভি চোপরা (ভারত), এলি অ্যান্ডারসন (ইংল্যান্ড) ও মেগি ক্লার্ক (অস্ট্রেলিয়া)।