• শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

  • || ১১ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

ভালো খেলেন মেহজাবিন

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ অক্টোবর ২০২৩  

 
শোবিজ তারকাদের নিয়ে আয়োজনা করা সেলিব্রেটি ক্রিকেট লিগে (সিসিএল)। গত বৃহস্পতিবার (২৮সেপ্টেম্বর) দেশের শোবিজ তারকাদের নিয়ে প্রথমবারের মতো শুরু হয় এই লিগ। বিভিন্ন তারকাদের সঙ্গে কেলছে ঢালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরী। এমনটাই মনে করছেন নেটিজেনরা।

এই অভিনেত্রী প্রথম ম্যাচে পরপর ২ বলে ২ উইকেট নিয়ে মেতে ওঠেন বুনো উল্লাসে।  ওই ম্যাচে উইমেন অব দ্য ম্যাচও হন মেহজাবিন। এবং দ্বিতীয় ম্যাচে ১১টি বল খেলেন তিনি। হাস্যোজ্জ্বল মেহজাবিন সারাখনই মাতিয়ে রাখছেন মাঠ।

এদিকে সেলিব্রেটি ক্রিকেট লিগে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন ছয়জন। শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে নির্মাতা মোস্তফা কামাল রাজ ও দীপংকর দীপনের দলের খেলা চলাকালীন দুই দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

মোস্তফা কামাল রাজ ও দীপংকর দীপনের দলের মধ্যে খেলা চলাকালীন মাঠে চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। মাঠের বাইরে থাকা দুইদলের সতীর্থদের মধ্যেও ছড়িয়ে পড়ে এই উত্তাপ। এরপরই দুই পক্ষের শুরু হয় হাতাহাতি। রাত সাড়ে ১১টার দিকে গিয়ে দ্বিতীয় দফায় শুরু হয় মারামারি। এতে আহত হন ছয়জন। তারা হলেন—শিশির সরদার, রাজ রিপা, জয় চৌধুরী, আতিকুর রহমান, শেখ শুভ ও আশিক জাহিদ। তাদের রাজধানীর জাতীয় অর্থোপেডিক্স হসপিটালে ভর্তি করানো হয়েছে।

এদিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে  ঢালিউড অভিনেত্রী রাজ রিপা অভিযোগ করেছেন, অভিনেতা শরিফুল রাজ তার ক্যারিয়ার ধ্বংস করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে গণমাধ্যমকে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে রিপা বলেন, ‘সকাল সাড়ে ১২টায় খেলা শুরু হওয়ার কথা ছিল। সেখানে রায়হান রাফী এসে বলছে— আমাদের দলের এই প্লেয়ার খেলতে পারবে না, ওই প্লেয়ার খেলতে পারবে না। সেকারণে আমাদের গ্রুপের খেলাটা অফ হয়ে যায়। সাড়ে তিন ঘণ্টা আমরা ওয়েট করি। ওদের মিটিং শেষে আমরা খেলতে নামি। ওদের রুলস অনুযায়ী খেলার মাঠে নামি। রায়হান রাফীর দল হেরে গেছে আমাদের কাছে।’

এরপর তিনি বলেন, ‘তারপর যখন মোস্তফা কামাল রাজ ভাইয়ের টিমের সঙ্গে খেলব তখন তারা আবার আমাদের খেলোয়াড়দের নিয়ে আপত্তি জানায়। এটা তো খেলার নিয়ম না। আমাদের গ্রুপে কে খেলতে পারবে কী পারবে না— এটা দীপঙ্কর দীপন দাদাই ঠিক করবে। মানে আপনারা বুঝতেছেন, পুরো সিসিএলের ম্যানেজমেন্টটা চরকির (ওটিটি প্ল্যাটফর্ম) সিন্ডিকেটের হাতে। তারা থ্রেট দিছে খুন করবে। শরিফুল রাজ ভাই পানির বোতল মেরে আমার বলছে, ক্যারিয়ার শেষ করে দেবে। ওর মতো মাতাল আমাদের ক্যারিয়ার শেষ করে দেবে!’

তবে যাদের ওপর অভিযোগ সেই মোস্তফা কামাল রাজ এবং শরিফুল রাজের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে দীপংকর দীপনও অফিসিয়াল ভাবে বিষয়টি নিয়ে কথা বলবেন বলে জানা গেছে।

খেলায় টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামে মোস্তফা কামাল রাজের দল গিগাবাইট স্কোরারস। নির্ধারিত ছয় ওভারে ১১৯ রান সংগ্রহ করে তাঁরা। লক্ষ্য তাড়া করতে ব্যাটিংয়ে নেমে দীপংকর দীপনের টিম শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৬ ওভারে ১১২ রান করতে সক্ষম হয়। ফলে ৭ রানে হেরে যায় দীপংকর দীপনের টিম।