• শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

  • || ১১ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

সুস্থ দাঁতের জন্য টুথব্রাশ পরিবর্তন করা জরুরি, কারণ...

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২৩  

দাঁতের যত্নে দামি টুথপেস্ট থেকে শুরু করে আয়ুর্বেদিক টুথপেস্টও ব্যবহার করে থাকি আমরা। কারণ দাঁত ভালো রাখাতে নিয়মিত ব্রাশ করা খুবই জরুরি। তবে একটানা একই ব্রাশ ব্যবহার করাও যে দাঁতের জন্য ক্ষতিকর এটা অনেকে হয়তো জানেই না। তাই অধিকাংশ মানুষ টুথব্রাশ খারাপ না হওয়া পর্যন্ত সেটি ব্যবহার করতেই থাকেন।

কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সুস্থ দাঁতের জন্য প্রত্যেক ব্যক্তির উচিত ৩ থেকে ৪ মাস পর পর টুথব্রাশ পরিবর্তন করা। আর যদি টুথব্রাশটি এরই মধ্যে নষ্ট হয়ে গিয়ে থাকে, তাহলে দ্রুতই তা পরিবর্তন করা উচিত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যাদের পরিবারে কারো কোনো ধরনের দাঁতের সমস্যা বা স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছে তাদের ১ থেকে ২ মাস পর পরই টুথব্রাশ পরিবর্তন করা উচিত।

বিশেষজ্ঞদের মতে, দীর্ঘদিন একই টুথব্রাশ ব্যবহারের কারণে দাঁত ও মুখের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। যেমন-

ব্রিসলসের দুর্বলতা: টুথব্রাশের ব্রিসলস দাঁত পরিষ্কার করতে এবং জীবাণু দূর করতে সাহায্য করে। দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহারের ফলে ব্রিসলসে ভঙ্গুরতা দেখা দিতে পারে। যার ফলে সেগুলি সঠিকভাবে কাজ করতে পারে না।

ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধি : একই ব্রাশ ব্যবহারে দাঁতে ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস এবং ছত্রাক ইত্যাদি জন্মাতে পারে। এই জীবাণুর অবাঞ্ছিত বৃদ্ধি মুখের মধ্যে সংক্রমণ ঘটাতে পারে।

সংক্রমণের ঝুঁকি: দীর্ঘ সময় ধরে একই টুথব্রাশ ব্যবহার করলে তাতে ব্যাকটেরিয়া ও জীবাণু বাড়তে পারে, যা দাঁত ও মাড়ির সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ায়।

টুথব্রাশের যত্ন নেবেন যেভাবে

যেভাবে আপনি ব্যক্তিগত পণ্য বা স্বাস্থ্যবিধি সরঞ্জামের যত্ন নেন সেভাবে টুথব্রাশের যত্ন নিন।

টুথব্রাশ অন্য কারো সঙ্গে এমনকি পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও শেয়ার করবেন না। যদি আপনার টুথব্রাশ অন্য টুথব্রাশের সঙ্গে একটি কাপে বা পাত্রে সংরক্ষণ করা হয়, তাহলে যাতে একটির সঙ্গে অন্যটির মাথা স্পর্শ না করে সেদিকে লক্ষ্য রাখুন।

ব্রাশ করার পরে, টুথব্রাশটি কলের পানি দিয়ে সম্পূর্ণরূপে ধুয়ে রাখুন। এতে জীবাণুনাশক, মাউথওয়াশ বা গরম পানি ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই।

টুথব্রাশ পরিষ্কার রাখার জন্য বিশেষ বন্ধ পাত্র ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। এতে ব্যাকটেরিয়া ছড়াতে পারে।

ভুল করে কেউ আপনার ব্রাশ দিয়ে দাঁত মাজলে সেটা ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। কারণ প্রত্যেকের মুখেই আলাদা ধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকে। ব্রাশের মাধ্যমে সেটা আপনার মুখেও ছড়িয়ে যেতে পারে।