• শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

  • || ০৪ মুহররম ১৪৪৬

চুলের যত্নে উপকারী যেসব তেল

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

চুলের যত্নে উপকারী যেসব তেল                               
সুন্দর ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল আমাদের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার সঙ্গে ব্যক্তিত্বের ওপরেও প্রভাব ফেলে। তাই চুলের যত্নে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো হেয়ার অয়েলিং বা চুলে তেল মালিশ করা।

বিশেষজ্ঞরা আরো বলেন, ‘নিয়মিত তেল মালিশে চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ে, একইসঙ্গে বিভিন্ন সমস্যারও সমাধান হয়’। তবে অনেকেরই প্রশ্ন, চুলের জন্যে কোন তেলগুলো ভালো, কোন নিয়মেই বা তেল মালিশ করতে হয়?

নিয়মিত তেল মালিশ করলে স্ক্যাল্পে রক্ত সঞ্চালণ বাড়বে। এর ফলে হেয়ার ফলিকলে প্রয়োজনীয় পুষ্টির ঘাটতি পূরণ হবে। এমনকী স্ক্যাল্পের সুস্বাস্থ্যও বজায় থাকবে। হেয়ার অয়েলিং নিয়ে তথ্য জানানো হয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলথলাইনে। যেমন-পরিমাণ মতো তেল নিন একটি পাত্রে। আঙুলের ডগায় তেল নিয়ে স্ক্যাল্পে ধীরে ধীরে লাগিয়ে নিন। এবার হাতের আঙুলের চাপ দিয়ে ভালো করে স্ক্যাল্প মালিশ করুন। ১০ মিনিট মালিশ করার পরে শাওয়ার ক্যাপ পরে নিন। আধ ঘণ্টা পরে শ্যাম্পু করুন। চুলের গোড়া থেকে তেল পরিষ্কার করতে ভুলবেন না।


যেসব উপকারিতা পাবেন
১. তেল মালিশে স্ক্যাল্পের সুস্বাস্থ্য বজায় থাকে।
২.  চুল পড়া কমে।
৩. এক্সফোলিয়েশন হয়।
৪. তেলে উপস্থিত ফ্যাটি অ্যাসিড চুলের উপকার করে।
৫. চুলের উজ্জ্বলতা বাড়ে।

চুলের জন্য উপকারী তেল
চুলের যত্নে কয়েকটি প্রাকৃতিক তেল খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এগুলো হলো-নারকেল তেল, আমন্ড অয়েল, আর্গন অয়েল, আমলকির তেল।

সপ্তাহে কতদিন তেল মাখতে হবে?
চুল ভালো রাখতে প্রতি সপ্তাহে তেল মাখতে হবে। সাধারণ চুলে সপ্তাহে কমপক্ষে ৩ দিন তেল মালিশ করতে পারেন। তৈলাক্ত স্ক্যাল্পে সপ্তাহে ১-২ দিন তেল লাগান এবং রুক্ষ-শুষ্ক চুলে আপনি ৩ দিন তেল মালিশ করতে পারেন। চুলে তেল লাগানোর পরে ৩০ মিনিট থেকে ১ ঘণ্টা অপেক্ষা করুন এবং তারপর শ্যাম্পু করে নিন।