• শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৩ ১৪৩১

  • || ১১ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

বক্স বানিয়ে ফেন্সিডিল যাচ্ছে রাজধানীতে! দুই হোতা গ্রেফতার

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৯ মার্চ ২০২৩  

   
মাদক ব্যবসায়ীরা এবার নতুন কৌশলে উত্তরাঞ্চলের সীমান্ত এলাকা হতে মাদক পাচার করছে রাজধানীতে। রাতের যাত্রীবাহী কোচে হাতলওয়ালা চেয়ারের ভেতর শতশত বোতল ফেন্সিডিল প্রেরণ করার অভিনব এই কৌশল এবার ধরা পড়েছে নীলফামারীর সীমান্তবর্তী উপজেলা ডিমলায়। 

পুলিশ এ ঘটনায় মাদকচক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করে। উদ্ধার করে ৩৬টি হাতলওয়ালা নতুন চেয়ার এবং চেয়ারের ভেতরে রাখা দুইশত ৫০ বোতল ফেন্সিডিল। তবে অভিযোগ উঠেছে পুলিশের অভিযান চলার পূর্বেই একটি চক্রের বেশ কিছু নেতাকমী দেড়শতাধিক ফেন্সিডিল হাতিয়ে নিয়ে সটকে পড়ে। 

পুলিশ জানান, মাদক পাচারের এই অভিনব কৌশলে মাদক ব্যবসায়ীরা ৩৬টি চেয়ারের মধ্যে ৮টি চেয়ার ঠিক রাখে। বাকী ২৮টি চেয়ারের বসার স্থান কেটে ফেলে। এরপর ৯টি করে চেয়ারের একটি করে বক্স তৈরী করে। এরমধ্যে সর্বশেষে এবং ওপরের চেয়ারটি থাকে স্বাভাবিক। এভাবে প্রতিটি বক্সে ১০০ করে ফেন্সিডিলের বোতল পাচারের জন্য রাখা হয়। 

এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষে নামীয় ৫ জন ও অজ্ঞাত ২/৩জনের নামে ডিমলা থানায় মামলা দায়ের করা হয় বলে গতকাল বুধবার বিষয়টি নিশ্চিত করে ডিমলা থানার ওসি লাইছুর রহমান। 

তিনি জানান, গ্রেফতারকৃত দুইজন ভুয়া ডিবি চক্রের সদস্য মাদক ব্যবসায়ী হাসান খান শান্ত (৩২) ও সাদ্দাম হোসেন (৩০)। শান্ত ডোমার উপজেলার ছোট রাউতা গ্রামের বাসিন্দা। সাদ্দাম ডিমলা উপজেলার বাবুরহাট গ্রামের বাসিন্দা। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায় হাতলওয়ালা চেয়ারের বসার স্থান কেটে তার ভেতর মাদক পাচার করে আসছে। এ ধরনের ঘটনা তারা বিভিন্ন সীমান্ত এলাকার উপজেলা থেকে ঢাকাগামী বাসে পাচার করে আসছে। গ্রেফতারকৃতদের মঙ্গলবার বিকালে আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয়। 

ডিমলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিশ্বদেব রায় বলেন, গত সোমবার রাতে ডিমলা বাবুরহাট ঢাকাগামী কোচষ্ট্যান্ডে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি আরএস পরিবহনের ঢাকাগামী একটি বাসে চট দিয়ে বেধে ৩৬টি হাতলওয়ালা নতুন চেয়ার ঢাকা পাঠানোর জন্য বুকিং দেয়। যা বাসের ছাদে তোলা হয়। এর কিছুক্ষন থানায় খবর আসে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে একদল লোক ওই চেয়ারগুলোতে মাদক পাচার করা হচ্ছে বলে চেয়ারগুলো বাস থেকে নামিয়ে একটি ব্যাটারী চালিত ভ্যানে উঠিয়ে দ্রুত পালিয়ে যাচ্ছে। থানার পুলিশের একটি দল ওই ভ্যানটি আটকের জন্য দ্রুত বেড়িয়ে পড়ে। তিনি জানান, আসামিরা দীর্ঘদিন ধরে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ছদ্মবেশ একই কায়দায় মাদক দ্রব্যের ব্যবসা করছিলেন। গ্রেফতারকৃত শান্তর বিরুদ্ধে তিনটি মাদক মামলা রয়েছে। যা আদালতে বিচারাধীন।

পুলিশ পৌছানোর আগেইপথচারী প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, এরমধ্যে রাস্তায় ওই ভ্যান আটকিয়ে অজ্ঞাত কয়েকজন মিলে চেয়ারের ভেতরে থাকা দেড়শতাধিক ফেন্সিডিলের বোতল ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। এরপর চেয়ার সহ  ভ্যানটি  উপজেলার ইসলামিয়া কলেজের সামনে এলে পুলিশ তা আটক করে তল্লাশি চলালে ভ্যানে থাকা ৯টি করে প্লাস্টিকের চেয়ারের ৩৬টি আসন কেটে অভিনব কায়দায় তৈরি বক্সের ভেতর রাখা ২৫০ বোতল ফেনসিডিলসহ দুই মাদক কারবারিকে আটক করতে সক্ষম হয়। এ সময় নিবন্ধনহীন একটি মোটরসাইকেল ও ৩৬টি তলা কাটা প্লাস্টিকের চেয়ার জব্দ করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।