• শনিবার   ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
তারা বুদ্ধিজীবী না, বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীজীবী- প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রার প্রশংসায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ঘূর্ণিঝড় ‘মানদৌস’ নিয়ে আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে: নৌপ্রতিমন্ত্রী শামসুল আলমের প্রতি ভারতীয় হাই কমিশনারের শ্রদ্ধা

নওগাঁর আত্রাইয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া পাকাঘর পেল ১৮ গৃহহীন পরিবার

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১১ আগস্ট ২০২০  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া পাকা ঘর পেল নওগাঁর আত্রাইয়ের ১৮টি গৃহহীন পরিবার। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টিআর) ও গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার (কাবিটা) কর্মসূচির বিশেষ বরাদ্দে এসব দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি নির্মাণ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

উপজেলা পিআইও অফিস সূত্রে জানা গেছে, ইটের গাঁথুনি, প্লেনশীটের দু’টি করে দরজা-জানালা, অত্যাধুনিক রঙিন টিনের চারচালা ছাউনিবিশিষ্ট ১০ ফিট লম্বা ও ১০ ফিট আয়তন নিয়ে দুই কক্ষের এ বাড়িগুলো নির্মিত হয়েছে। এছাড়া বাড়িগুলোতে একটি রান্নাঘর ও স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটারি শৌচাগার, বাড়ির সামনে এবং রান্নাঘরের সঙ্গে টিনের ছাউনির বারান্দা রয়েছে। প্রত্যেক বাড়ি তৈরিতে খরচ হয়েছে ২ লাখ ৯৯ হাজার ৮৬০ টাকা। ইউএনও এবং জনপ্রতিনিধিদের তত্ত্বাবধানে প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের মাধ্যমে বাড়িগুলো নির্মাণ হরয়েছে।

জানা গেছে, 'গৃহহীনদের গৃহদান' কর্মসূচি এবং বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার 'আমার গ্রাম, আমার শহর' অনুযায়ী গ্রামীণ এলাকায় যে সকল দরিদ্রদের সামান্য জমি বা ভিটা আছে কিন্তু টেকসই ঘর নেই তারাই এ সুবিধা পেয়েছে। তাদের জন্য ৮০০ বর্গফুটের জায়গায় রান্নাঘর, টয়লেটসহ একটি সেমিপাকা টিনশেডের দুই কক্ষবিশিষ্ট এসব বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। এ জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রাণালয় ১ কোটি ১৯ লাখ ৯৪ হাজার ৪০০ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে।

সুবিধাভোগী লতা বানু জানান, ‘আমি কোনো দিন পাকা ঘরে থাকার স্বপ্নও দেখিনি। আমাদের সামান্য জমিতে সরকার ঘর করে দেওয়ায় স্থায়ী আশ্রয় পেলাম। খেয়ে না খেয়ে থাকলেও আজ আমি শান্তিতে ঘুমাতে পারছি।’

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা নভেন্দু নারায়ণ চৌধুরী জানান, দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নে হস্তান্তরিত এসব বাড়িতে বন্যা, ঘূর্ণিঝড় এবং বজ্রপাত প্রতিরোধ সক্ষমতা রয়েছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছানাউল ইসলাম বলেন, ‘হতদরিদ্রদের জন্য দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি নির্মাণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিনব ও চমকপ্রদ একটি কর্মসূচি। সরকারের এই কর্মসূচির মূল উদ্দেশ্য- দারিদ্র্য থেকে উত্তরণে গ্রামের পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন এবং কোনো মানুষ যেন গৃহহীন না থাকে।’