• রোববার   ২৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৯

  • || ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার প্রশংসা পর্তুগালের মরণোত্তর ‘দ্যাগ হ্যামারশোল্ড’ পেলেন দুই বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী দেশে ভেনামি চিংড়ি চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের শিল্পনগরী ও অর্থনৈতিক অঞ্চল হচ্ছে দিনাজপুর: হুইপ ইকবালুর রহিম আরও সময় নিয়ে বৈঠকের প্রস্তুতি নিতে চায় দুই ঢাকা-দিল্লি

দেবীগঞ্জে হারিয়ে যেতে চলেছে দানাদার ফসল কাউন চাষ

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৪ মে ২০২২  

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় দানাদার ফসল কাউন চাষ হারিয়ে যেতে চলেছে। আগের মতো এখন কাউন চাষ এ উপজেলায় আর তেমনভাবে হচ্ছে না। 

বিজ্ঞানভিত্তিক কৃষি চাষ ও কৃষিতে অধিক ফলন কাউন চাষের প্রয়োজনীয়তা কৃষকদের নিরুৎসাহিত করেছে। কাউন চাষের আবেদন দুই দশক আগেও ছিল।  দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কাছে কাউনের ভাত প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় থাকত। সময়ের ক্রমাগত পরিবর্তন ও প্রযুক্তির উৎকর্ষে কাউনের চাষকে পেছনে ফেলে নিয়ে এসেছে বছরে তিন-চার ফসলি উত্পাদন। 

কাউনের চালের পায়েস খেতে ভালো লাগে, এছাড়া কাউন-গাছ জমিতে পচে ভালো সার তৈরি হয়। এছাড়া কাউন চাষ করলে সেই জমির উর্বরা শক্তি বাড়ে। তবে এখনো কিছু কিছু কৃষক ছোট পরিসরে কাউনের চাষ টিকিয়ে রেখেছেন। নতুন প্রজন্মের কাছে এর পরিচিতি ধরে রাখতে কাউন চাষের প্রতি মনোযোগ বাড়ানো দরকার বলে অনেক কৃষক মনে করছেন। 

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাফিয়ার রহমান জানান, কৃষি বিভাগ থেকে সব রকমের রবিশস্যের চাষাবাদ করতে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। বর্তমানে কাউনের চাল ৪০ টাকা কেজিতে বাজারে বিক্রি হচ্ছে।

কৃষি বিভাগের সূত্র মতে, চলতি বছর উপজেলায় পাঁচ হেক্টর জমিতে কাউন চাষ হয়েছে।