• শুক্রবার   ২২ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৮

  • || ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু এক্সিবিশন সেন্টার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী একই দিনে উদ্‌যাপিত হলো তিন ধর্মের উৎসব চীন থেকে এলো আরো ৫৫ লাখ সি‌নোফা‌র্মের টিকা শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশে সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারী যেই হোক ব্যবস্থা নেয়া হবে’

নীলফামারীতে শুরু হচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে জানো’ কর্মসুচি 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৮ অক্টোবর ২০২১  

‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে জানো’ নীলফামারীতে বছরব্যাপী কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন হবে আগামীকাল শনিবার (৯ অক্টোবর)। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতা ও বিজয়ের ৫০ তম বার্ষিকী উপলক্ষে ওই কর্মসূচি গ্রহন করেছে নীলফামারী জেলা পরিষদ। বেলা আড়াইটার দিকে ওই উদ্বোধনী উপলক্ষে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আয়োজন করা হয়েছে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ। 

শুক্রবার(৮ অক্টোবর/২০২১) বেলা ১১টার দিকে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা মো. অতুল মন্ডল জানান, অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহন করবেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, প্রধান আলোচক নীলফামারী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর। সভাপতিত্ব করবেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ সাধারণ মানুষকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় জাগ্রত করার প্রয়াসে এমন আয়োজন। এছাড়া অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত থাকবেন ১১ নম্বর সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত আলী সরকার বীর বিক্রম, একই সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মাহবুব এলাহী রঞ্জু বীর প্রতীক, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ সাদরুজ্জামান হেলাল বীর প্রতীক, বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান খান বীর প্রতীক, ১০ নম্বর সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান কবীর বীর প্রতীক, ২ নম্বর সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আনোয়ার হোসেন বীর প্রতীক, একই সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান খান বীর প্রতীক, ৬ নম্বর সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্যাপ্টেন আজিজুল হক বীর প্রতীক। পাশাপাশি ওই অনুষ্ঠানে জেলার বাইরে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের ১৪টি জেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা, জেলার ছয় উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা, তাঁদের সন্তান, শিক্ষার্থী ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের মানুষ উপস্থিত থাকবেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।